ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বলেছেন উন্নায়নের নামে প্রকৃতি ও কৃষি জমিকে ধ্বংশ করা যাবে না। কৃষি জমি সুধু খাদ্যই যোগায় না, এখানে অনেকের পেশা ও কর্মসংস্থান জড়িত আছে।

একই সাথে প্রকৃতি হচ্ছে বড় সম্পদ বেঁচে থাকার উপায়। এজন্য তিনি কৃষি জমি, যাতে অকৃষিতে পরিবর্তন না করতে পারে সে জন্য সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ভূমি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে উপজেলা সভাকক্ষে। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে, জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলমের বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

জেলা প্রশাসকের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী ও বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এটিএম হামিম আশরাফ, উপজেলা প্রকৌশলী সাহিদুজ্জামান, এলুয়াড়ী ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মওঃ নবীউল ইসলাম প্রমুখ।

জেলা প্রশাসকের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপজেলা সাতটি ইউপি চেয়ারম্যান, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষকগণ এবং উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম আরো বলেন দিনাজপুর জেলাটি দেশের খাদ্য ভান্ডার বলে পরিচিত, দিনাজপুরের কাঠারী ভোগ চাউলের বিশ্ব জোড়া নাম আছে। কৃষি যেমন আমাদের খাদ্য যোগায়, তেমনী এই খাতে অনেক লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়। এই কৃষি খাতটি বন্ধ হয়ে গেলে আমাদের খাদ্য উৎপান যেমন কমে যাবে, একই সাথে কৃষির সাথে জড়িত বহু মানুষের কর্মসংস্থান হারিয়ে যাবে। এজন্য এমন কোন উন্নায়ন প্রকল্প হাতে নেয়া যাবে না ,যে প্রকল্প কৃষিকে ধ্বংশ করে দিবে। একই সাথে তিনি দেশ ও জাতীর ভবিষৎ রক্ষার্থে মাদক ও জঙ্গিবাদের হাত থেকে আমাদের নতুন প্রজন্মকে রক্ষার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য