ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির পূর্বসূরী সংগঠন ভারতীয় জনতা সঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামা প্রসাদ মুখার্জির একটি আবক্ষ মূর্তির মুখে কালি লাগানো ও ভাংচুরের অভিযোগে এক নারীসহ ৭জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার সকালে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় শ্যামা প্রসাদের মূর্তিটির ওপর হামলা হয় বলে খবর এনডিটিভির।

ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনের জয়ের পর সোমবার উন্মত্ত বিজেপি সমর্থকরা বেলোনিয়ায় রুশ সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের মহানায়ক ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিনের মূর্তি বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়ার পর থেকে ভারতজুড়ে একের পর এক মূর্তি ভাংচুরের ঘটনা ঘটছে।

মঙ্গলবার রাতে তামিলনাডুতে দ্রাবিড় আইকন ভিআর রমাসামীর একটি মূর্তিও ভাংচুরের শিকার হয়েছে। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বিজেপি কর্মীদের কাছে ‌’আইকন’ হিসেবে খ্যাত শ্যামা প্রসাদের মূর্তির সম্মানহানি ও ভাঙচুরের খবর এলো।

শ্যামার প্রসাদের মূর্তিটির মুখমন্ডলজুড়ে কালির পাশাপাশি চোখ ও কানের বেশিরভাগ অংশই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হাতুড়ি ব্যবহার করে মূর্তির এ অবস্থা করা হয় বলে ধারণা পুলিশের।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এক নারীসহ ৭জনকে আটক করা হয়েছে বলে টুইটারে জানিয়েছ কলকাতা পুলিশ।

শ্যামা প্রসাদের আবক্ষ মূর্তিতে কালি লাগানোর ঘটনার তীব্র প্রতিবাত জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি।

“মূর্তি ভাংচুরের বর্বর ঘটনা এটি। দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি আমরা,” বলেন পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু।

দলটি এ ঘটনার প্রতিবাদে শোভাযাত্রা ও কলকাতায় ‌’আইন অমান্য দিবস’ পালনেরও ডাক দিয়েছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ত্রিপুরা ও তামিলনাডুতে মূর্তি ভাংচুরের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাজ্য কর্তৃপক্ষগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য