বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদাতাঃ বীরগঞ্জে অগ্নিকান্ডে ৫টি বাড়ী ভষ্মিভুত পরিবারগুলোর ২০ লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

পুলিশ-ফায়ার সার্ভিস ও প্রত্যক্ষদর্শি সুত্রে জানা গেছে, উপজেলা সদর সুজালপুর ইউনিয়নের কঙগরপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে আনারুল ইসলামের রান্নঘর থেকে ৬ মার্চ বেলা ৩টায় অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়।

মুহুতেই প্রতিবেশী আতাবুল ইসলাম, মতিবুল ইসলাম, আলমগির হোসেন ও লুৎফর রহমানে ১০ ঘরে আগুনের লেলিহান ছরিয়ে পড়ে।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ আগুন নেভাতে চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। পরে দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট কমান্ডার এরশাদের নেতৃত্বে একদল ফায়ার সার্ভিসের কর্মী আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

অগ্নিকান্ডে ধান-চাল, সরিষা-কালাই, কাপর-চোপর, থালা-বাসন, বিছানা-বালিশ সহ ঘরের যাবতীয় মালামাল সহ আনারুল ইসলামের নগদ ৪ লক্ষ টাকা সহ ১০ লক্ষ, আতাবুল ইসলামের নগদ ৮৬ হাজার টাকাসহ ৪ লক্ষ, মতিবুলের নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ ৪ লক্ষ, আলমগির হোসেনের ৪২ হাজার টাকাসহ সারে ৩ লক্ষ ও লুৎফর রহমানের নগদ ১৬ হাজার টাকাসহ ২ লক্ষ টাকাসহ আনুমানিক ২০ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার (চলতি দায়িত্ব) বিরোদা রানী রায় ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আব্দুল হাই সরকার ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সরকারী ভাবে কাপর-চোপর (কম্বল) ও খাওয়ার ব্যবস্থা করা জন্য নিদের্শ দিয়েছেন।

সুজালপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহেশ চন্দ্র রায়, ইউপি সদস্য আনসারুল ইসলাম ও মুক্তা বেগম ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোর দুর্দশা উপলব্ধি করে সরকারী সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য