আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ নির্বাচন কমিশনার মো. রকিবুল ইসলাম বলেছেন, আগামী ১৩ মার্চ গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে সংসদ উপ-নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য করার জন্য সবধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের আওতায় সকল শক্তি যথাযথ দায়িত্ব পালন করবে। তিনি বলেন, ভোট সম্পর্কে জনগণের যে আস্থা কমে গেছে তা ফিরিয়ে আনতে হবে। এজন্য নির্বাচন প্রার্থীসহ ভোটের সাথে জড়িত সকলকে ঐকান্তিকভাবে সহযোগিতা করতে হবে।

জাতীয় সংসদের গাইবান্ধা-১ আসনে উপ-নির্বাচন উপলক্ষে স্থানীয় কালেক্টরেট সম্মেলণ কক্ষে জেলা পর্যায়ের এক সভায় গতকাল মঙ্গলবার তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, আস্থার নির্বাচন চাই, একটি ভালো নির্বাচন দেখতে চাই।

এজন্য যে সহযোগিতার প্রয়োজন প্রার্থীদের তা দিতে হবে। তা না হলে গণতন্ত্র ব্যাহত হবে, উন্নয়ন ব্যাহত হবে এবং দেশের ভাবমুর্তি নষ্ট হবে।

নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, কমিশনের কাছে সকল প্রার্থীই সমান। অনিয়মের আশ্রয় নেয়া হলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। তিনি যে দলেরই হোন না কেনো। গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের ক্ষেত্রে কেউ আইন শৃংখলা ক্ষতিগ্রস্ত করলে তখন অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রয়োজনে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, ভোটাররা যাতে নিরাপদে ভোট কেন্দ্রে আসতে এবং বাড়ী ফিরতে পারে সে পরিবেশ নিশ্চিত করা হবে।

তিনি প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নতুন প্রজন্ম কোন দল বোঝে না। তারা নিরপেক্ষভাবে ভোট দিতে চায়। তাদের আস্থা অর্জন করার চেষ্টা করেন।

জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে এ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান সরকার, সাংবাদিক শহিদুজ্জামান প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য