সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকা পূর্ব ঘৌটায় দশ শতাংশের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে রাশিয়া সমর্থিত প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদ সমর্থিত বাহিনী। যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার গ্রুপ সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এই তথ্য জানিয়েছে। সংগঠনটি বলছে, শনিবারও সেখানে বিমান হামলা

অব্যাহত রেখেছে আসাদের বাহিনী। কাছের দামাস্কা থেকে বোমাবর্ষণের মধ্য দিয়ে তা প্রতিহত করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে বিদ্রোহীরা। শনিবারের বিমান হামলায় অন্তত ২১ জন বেসামরিক নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

আসাদ সরকারের বিরোধীদের সর্বশেষ শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত পূর্ব ঘৌটায় প্রায় ৪ লাখ মানুষের বাস। ২০১৩ সাল থেকে এলাকাটি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সেখানে ধারাবাহিক বিমান হামলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের তীব্র নিন্দার পর নিরাপত্তা পরিষদে ৩০ দিনের অস্ত্রবিরতির প্রস্তাব সর্বসম্মত পাস হয়। কিন্তু তারপরও বিমান হামলা বন্ধ না হওয়ায় ওই অস্ত্রবিরতি এখনও কার্যকর হয়নি।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি পূর্ব ঘৌটায় বিমান হামলা শুরু হলে ৬৪০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। এর মধে দেড় শতাধিক শিশুও রয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব সম্প্রতি বলেছেন, স্থানীয় বাসিন্দারা পৃথিবীর নরকের মধ্যে বসবাস করছেন।

আসাদ সরকারের মিত্র মস্কো পূর্ব ঘৌটার বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপদে এলাকা ছাড়ার আহ্বান জানালের সিরিয়ান অবজারভেটরি বলছে গত মঙ্গলবারের পর থেকে কেউই এই সুযোগ নেয়নি।

শনিবার রাশিয়ার সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, পূর্ব ঘৌটার কোনও বেসামরিক নাগরিক শহর ছেড়ে যাওয়ার নিরাপদ রাস্তা ব্যবহার করেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য