কুড়িগ্রামের চিলমারীতে জমি দলিল সংক্রান্ত কলহের জের ধরে সামাদ প্রামানিক(৫৫) নামে এক বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মৃতের স্ত্রী লাইলী বেগম, নওশাদ আলী, ছবিলা বেগম ও লাল বানু নামে ৪জনকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে এলাকাবাসী। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নের গয়নার পটল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায়, সামাদ প্রামানিকের সাথে তার স্ত্রী লাইলি বেগম ও শ্যালক হকে খা’র সাথে জমির দলিল নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হয়।এরই জের ধরে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সামাদের শ্যালক হকে খাঁ(৪৫),হকে খা’র স্ত্রী আমিরন,তার বেয়াই সাবেক মেম্বার নওশাদ(৪৮),নওশাদ মেম্বারের স্ত্রী সাবেক সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য ছবিলা বেগম(৩৮), হকে খাঁর মেয়ে শিল্পী খাতুন(২৮) মিলে সামাদের অন্ডকোষ ও গলা চিপে হত্যা করে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী লাইলী বেগম, ছবিলা বেগম নওশাদ ও লাল বানুকে আটক করলেও হকে খা ও তার স্ত্রী আমিরন পালিয়ে যায়।

নয়ারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু হানিফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,ঘটনা স্থলে গিয়েছিলাম, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে ঢুষমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদ পারভেজ শনিবার দুপুরে জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম পাঠানো হয়েছে। জড়িত সন্দেহে ৪জনকে আটক করা হয়েছে, মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য