ঠাকুরগাঁও সংবাদাতাঃ অভাবের সংসারে শেষ সম্বল ১টি গরু ছাড়া আর কিছুই নেই। সেই গরুটি স্বামী বিক্রি করে জুয়ার আসরে উড়িয়ে দেবে শুনে বিক্রির জন্য রাজী না হওয়ায় আনোয়ারা বেগম( ২২) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। স্বামীর পরিবারের লোকজন বলছে নিজে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে আর গৃহবধুর পরিবারের লোকজনের অভিযোগ তাকে মেরে মুখে বিষ দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের চড়ুইগোদী গ্রামে এই হৃদয়স্পর্শী ঘটনা ঘটে। আনোয়ারা বেগম উপজেলার বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়নের গড়িয়ালী গ্রামের আমিরুল ইসলামের মেয়ে।

আমজানখোর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আকালু বলেন, গৃহবধুর স্বামী জামাল তার শ্বশুর বাড়ির দেয়া একটি গরু বিক্রি করতে চেয়েছিল। তবে আনোয়ারা বেগমের সম্মতি মিলছিল না।এ নিয়ে গতকাল বৃস্পতিবার রাতে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এ সময় জামাল তার স্ত্রীকে মারপিট করলে শুক্রবার সকালে নিজ ঘরে বিষপান করে গৃবধু আনোয়ারা।

স্থানীয়রা জানান, ঘরের দরজা ভেঙ্গে আনোয়ারাকে বের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আবুল কাশেম ওই গৃহবধুকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

আনোয়ারার বাবা আমিরুল ইসলামের অভিযোগ করে বলেন, তার মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করে মুখে বিষ ঢেলে দেয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায় জামাল জুয়া খেলায় আসক্ত। জুয়া খেলায় তার টাকার অভাবে সে গরুটি বিক্রি করতে চেয়েছিল।

শুক্রবার রাত ৯টায় এ বিষয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, গৃহবধুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে। এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করলে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য