সাধ করে খেতে বসেছেন, আর এমনি উঠল বিরক্তিকর হেঁচকি! পানি খাওয়ার পরেও দূর হচ্ছে না এবং অস্বস্তি ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলেছে। বিরক্তিকর হেঁচকি কি কারণে হয় এবং এটি লাঘবে কী করণীয় তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল:

যে কারণে হেঁচকি হয়

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন কোনো কারণ ছাড়াই হেঁচকি উঠতে পারে। তবে কোনো আবেগ-উত্তেজনা, খাদ্য ও পানি গ্রহণের সময়ে হেঁচকি উঠতে পারে। এছাড়া একসঙ্গে অনেক খাবার মুখে দেয়া, অনেক বেশি অ্যালকোহলিক তরল পান, ধূমপানের কারণে হেঁচকি উঠতে পারে।

এছাড়া পাকস্থলীর তাপমাত্রার আকস্মিক পরিবর্তন যেমন ঠাণ্ডা তরল গ্রহণের পরে আবার গরম তরল গ্রহণেও হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে নারীদের তুলনায় পুরুষদেরই বেশি হেঁচকি উঠে।

যা করবেন হেঁচকি উঠলে

* একটি পলিথিন ব্যাগে নিঃশ্বাস নেন, শুধু মুখ দিয়ে। পুরো মাথা পলিথিন ব্যাগে ঢোকাবেন না।
* ঠাণ্ডা এক গ্লাস পানি খান।
*সম্ভব হলে এক চামচ মধু অথবা চিনি গ্রহণ করুন।
*মুখে লেবু নিন সম্ভব হলে একটু ভিনেগার খান।
* অল্প সময়ের জন্য নিঃশ্বাস বন্ধ করে ১ থেকে ১০ পর্যন্ত গণনা করুন।

হেঁচকি উঠলে যে কাজগুলো থেকে বিরত থাকবেন

*অ্যালকোহল মিশ্রিত এবং কোলাজাতীয় পানীয় অথবা গরম পানীয় পান করবেন না।
*চুইংগাম অথবা ধূমপান থেকে বিরত থাকুন, এতে আপনার আকস্মিকভাবে পাকস্থলীতে অনেক বাতাস ঢুকে সমস্যা হতে পারে।
* তাড়াহুড়া করে খাদ্য গ্রহণ করবেন না।
* মশলাযুক্ত খাবার গ্রহণ করবেন না।
*গরম বা ঠাণ্ডা পানীয় গ্রহণের পর পরই এর বিপরীত ধর্মীয় পানীয় গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকুন।

সাধারণত হেঁচকি উঠলে ১৫-২০ মিনিটের মধ্যেই সেরে যায়। কিছু কিছু সময় দিনব্যাপীও হেঁচকি থাকতে পারে। তবে ৪৮

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য