রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ইতিহাসের কোনো ঘটনা পাল্টে দেওয়ার সুযোগ থাকলে তিনি গত শতকের নব্বইয়ের দশকে হওয়া সোভিয়েত পতনের ঘটনা উল্টে দিতেন।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে শুক্রবার কালিনিনগ্রাদে সমর্থকদের করা প্রশ্নের জবাবে প্রায় দুই দশক ধরে মস্কোর ক্ষমতায় থাকা পুতিন এ মন্তব্য করেন বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

রুশ প্রেসিডেন্টের এ মন্তব্য স্মৃতিকাতর কোটি বয়স্ক নাগরিককে পুরনো দিনের আবেশ দিতে পারে বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের, যা ১৮ মার্চের নির্বাচনে পুতিনের ফের ক্ষমতায় আসার পথ সহজ করবে।

জনমত জরিপগুলোতে সাবেক এ কেজিবিপ্রধান বিপুল ভোটে জয়ী হবেন বলেও ইঙ্গিত দেওয়া হচ্ছে।

নির্বাচনী প্রচারের অংশ হিসেবে শুক্রবার রাশিয়ার ইউরোপ অংশের কালিনিনগ্রাদে যান পুতিন। দেন সমর্থকদের করা প্রশ্নের তাৎক্ষণিক জবাব।

আধুনিক রুশ ইতিহাসের কোন ঘটনা সুযোগ থাকলে বদলে দিতেন, প্রশ্নোত্তর পর্বের এক পর্যায়ে এমনটাই জানতে চাওয়া হয় পুতিনের কাছে।

“সোভিয়েত ইউনিয়নের পতন,” ত্বরিত জবাব রুশ প্রেসিডেন্টের।

২০০৫ সালে দেওয়া এক ভাষণে পুতিন ১৯৯১ সালের সোভিয়েত পতনকে বিংশ শতাব্দীর ‘সবচেয়ে বড় ভূরাজনৈতিক বিপর্যয়’ অ্যাখা দিয়েছিলেন। দেশপ্রেম সংহত ও রুশ পরিচয়কে উর্ধ্বে তুলে ধরতে নাগরিকদের কাছে তিনি প্রায়ই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সোভিয়েতের লাল বাহিনীর হাতে জার্মান নাৎসীদের পরাজয়ের নজির টানেন বলেও রয়টার্সের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ইতিহাসের যে কোনো সময়ে যাওয়ার সুযোগ থাকলেও তিনি বর্তমান সময়েই বেঁচে থাকতে চাইতেন।

“যদি পেছনের সময়গুলোর দিকে তাকান, দেখবেন আমার পূর্বসূরীরা ছিল ভূমিদাস, আর আমি প্রেসিডেন্ট,” বলেন পুতিন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য