পরিবর্তনের হাওয়ায় সৌদি আরবে এবার নারীদের সামরিক বাহিনীতে সৈনিক পদে যোগ দেওয়ার সুযোগ তৈরি হচ্ছে।

সৌদি আরবের জেনারেল ডিরেক্টরেট অব পাবলিক সিকিউরিটির ঘোষণা অনুযায়ী রিয়াদ, মক্কা, মদিনা, কাসিম, আসির, আল-বাহা ও পূর্বাঞ্চল প্রদেশের নারীরা আগামী ১ মার্চ পর্যন্ত অনলাইনে সৈনিক পদে আবেদন করতে পারবেন।

সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে সোমবার সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সৈনিক পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে সৌদি নারীদের জন্য ১২টি মানদণ্ড ঠিক করেছে দেশটির নিরাপত্তা বিভাগ।

আবেদনকারীকে অবশ্যই সৌদি বংশোদ্ভূত হতে হবে, বড় হতে হবে সৌদি আরবে; যদি না তার বাবা সরকারি কাজে বিদেশে বসবাস করে থাকেন।

আবেদনকারী নারীদের বয়স হতে হবে ২৫ থেকে ৩৫ এর মধ্যে, উচ্চতা হতে হবে ১৫৫ সেন্টিমিটারের (৫ ফুট ১ ইঞ্চি) বেশি। ওজন হতে হবে উচ্চতার সঙ্গে ভারসাম্যপূর্ণ। এবং আবেদনকারীকে অবশ্যই হাই স্কুল পাস হতে হবে।

মেডিকেল পরীক্ষা ও সাক্ষাৎকার পর্বের মধ্য দিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে আবেদনকারীকে। সৌদি নাগরিক নন এমন কাউকে বিয়ে করলে আবেদনের যোগ্যতা হারাবেন। অপরাধমূলক কার্যকলাপের রেকর্ড আছে কিংবা আগে কখনো সরকারি বা সেনাবাহিনী সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে কাজ করেছেন এমন নারীরাও যোগ্য বিবেচিত হবেন না।

আবেদনকারীর অবশ্যই স্বতন্ত্র জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে এবং কর্মস্থল এলাকার বাসিন্দা হতে হবে। অভিভাবকের কর্মস্থলও হতে হবে একই এলাকায়।

গত বছর মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্স হওয়ার পর থেকে নারীদের ওপর থেকে একের পর এক বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হচ্ছে। নারীরা এখন মাঠে বসে কনসার্ট ও খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছেন, এ বছর থেকে তাদের গাড়ি চালানোর সুযোগ দেওয়ারও পরিকল্পনা আছে।

বদলের হাওয়ায় সৌদি আরবে খোলা হচ্ছে সিনেমা হলও। এরই ধারাবাহিকতায় সেনাবাহিনীতেও নারীদের নিয়োগ কার্যক্রম শুরু হল।

চলতি মাসের শুরুর দিকে নারীদের তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ শুরুর কথাও ঘোষণা করেছে দেশটির পাবলিক প্রসিকিউশন বিভাগ। একই ধরনের ঘোষণা এসেছে পাসপোর্ট অধিদপ্তর ও বিচার মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকেও।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য