মিয়ানমারের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর লাশিওতে বোমা বিস্ফোরণে দুই ব্যাংক কর্মী নিহত হয়েছেন।

বুধবারের এ ঘটনায় অন্য আরো ২২ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে মিয়ানমার সরকার ও সামরিক বাহিনী, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ঘটনার বিষয়ে একটি তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে হামলার সঙ্গে কোনো সন্দেহভাজন জড়িত আছে কিনা সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

লাশিও মিয়ানমারের অস্থিরতা কবলিত শান রাজ্যের একটি শহর। রাজ্যটির বেশ কয়েকটি বিদ্রোহী নৃগোষ্ঠী মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর সঙ্গে লড়াইরত আছে।

মিয়ানামারের রাজধানী নাপিদো থেকে পুলিশের মুখপাত্র কর্নেল থেত নায়িং বলেছেন, “লাশিওতে বোমার বিস্ফোরণ সম্পর্কে আমরা শুধু স্থানীয় পুলিশের একটি প্রতিবেদন পেয়েছি।”

এক টুইটে নিহত দুজনকে নারী বলে জানিয়েছেন মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জাও হাতা। লাশিও বিস্ফোরণ সম্পর্কে টুইটারে দেওয়া সরকারি বিবৃতিতে তিনি একথা জানিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, বিস্ফোরণে ২২ জন আহত হয়েছেন।

পুলিশের আরেক মুখপাত্র কর্নেল মিও থু সোয়ে জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের সঙ্গে জড়িত কোনো সন্দেহভাজনকে সনাক্ত করা যায়নি।

“আমরা তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছি,” রয়টার্সকে বলেছেন তিনি।

লাশিওর বাসিন্দা ২৭ বছর বয়সী লয়ে দেহনিন জানিয়েছেন, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন তিনি, বিস্ফোরণটি শহরের কেন্দ্রস্থলে আঞ্চলিক স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভবনের নিকটবর্তী দুটি ব্যাংকের কাছে ঘটেছে।

“আয়া ও ইয়োমা ব্যাংকের কাছে বিস্ফোরণটি ঘটেছে। ব্যাংকগুলোর জানালা ভেঙে গেছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এবং নিকটবর্তী কয়েকটি বাসার জানালাও ভেঙে গেছে,” বলেছেন তিনি।

ইয়োমা ব্যাংক জানিয়েছে, তাদের লাশিও শাখার দুই কর্মী নিহত হয়েছেন এবং এরপর থেকে ওই শহরে তাদের ব্যাংকের দুটি শাখাই সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

সত্যাসত্য নির্ধারণ করা যায়নি এমন কয়েকটি ছবি ও ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেছেন স্থানীয় বাসিন্দা ও সাংবাদিকরা। তাতে দেখা গেছে, বিস্ফোরণে ব্যাংক ভবনটির জানালা ভেঙে পড়েছে এবং সাইনবোর্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, ইয়োমা ব্যাংকের একটি দেওয়ালেও ক্ষত চিহ্ন দেখা গেছে।

লাশিও মিয়ানমারের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সবচেয়ে বড় শহরগুলোর অন্যতম। শহরটি চীনের সঙ্গে মিয়ানমারের সীমান্ত ক্রসিং এলাকা মুসের সঙ্গে মধ্যাঞ্চলীয় শহর মান্দালয়ের প্রধান সংযোগ সড়কের দুইপাশে ছড়ানো।

শানে বোমা বিস্ফোরণ অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা না হলেও এ ধরনের শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা তুলানামূলক কম, আর বেসামরিক হতাহতের ঘটনা বিরল বিষয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য