ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইরত যেকোনো সংগঠনকে সমর্থন দিয়ে যাবে ইরান। তিনি মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল পিবিএস’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেছেন।

লেবাননের হিজবুল্লাহর প্রতি ইরানের সমর্থনে সৌদি আরব কেন ক্ষুব্ধ হচ্ছে- এমন এক প্রশ্নের জবাবে জারিফ বলেন, হিজবুল্লাহকে সমর্থন দেয়ার জন্য সৌদি আরবের অনুমতি নেবে না তেহরান। উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশ ও আন-নুসরার বিরুদ্ধে যে সংগঠনই যুদ্ধ করবে তাকে সমর্থন জানাবে ইরান।

জাওয়াদ জারিফ বলেন, সারাবিশ্বের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে পড়া যেসব গোষ্ঠী ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ, ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে তাদের প্রত্যেকটির সঙ্গে সৌদি আরবের যোগসূত্র রয়েছে। সৌদি আরবের তেলের টাকায় উগ্র মতবাদ ও শিক্ষা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইরাক ও সিরিয়া যুদ্ধ বন্ধে তেহরান ও রিয়াদের কাজ করা উচিত। সেইসঙ্গে বাহরাইনের গণ আন্দোলন দমন বন্ধ এবং ইয়েমেনে বিদেশি আগ্রাসন বন্ধেও এই দুই দেশের প্রচেষ্টা চালানো উচিত।

ইয়েমেন যুদ্ধে ইরানের ভূমিকা সম্পর্কে এক প্রশ্নের উত্তরে জারিফ বলেন, ইয়েমেনে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের কোনো স্বার্থ নেই। ইয়েমেন পরিস্থিতি এতটা গুরুতর আকার ধারণ করার আগেই আলোচনার টেবিলে সংকট সমাধানের জন্য রিয়াদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল তেহরান। কিন্তু সে আহ্বানে সৌদি সরকার সাড়া দেয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য