ইউরোপের মন্টিনিগ্রোতে মার্কিন দূতাবাসে হামলার চেষ্টা করেছে এক দুর্বৃত্ত। দূতাবাস লক্ষ্য করে একটি বিস্ফোরক ছুড়ে মারেন তিনি। এরপর নিজেই বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মহত্যা করেন। ধারণা করা হচ্ছে, ছুড়ে মারা বস্তুটি হ্যান্ডগ্রেনেড ছিল। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির সরকার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। টুইটবার্তায় তারা জানায়, রাত সাড়ে ১২টার দিকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তি নিজে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মহত্যা করেন।

টুইটবার্তায় বলা হয়, আত্মহত্যার ঠিক আগমুহূর্তে লোকটি একটি বিস্ফোরক ছুড়ে মারে। সেটি হ্যান্ডগ্রেনেড ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, বিষয়টি নিয়ে তারা তদন্ত করছে। রয়টার্স জানায়, দূতাবাসের চারপাশে পুলিশের গাড়ি দিয়ে রাস্তা বন্ধ করা। দূতাবাস ভবনে কোনও ক্ষতির চিহ্ন নেই।

পরবর্তী নোটিস না দেওয়া পর্যন্ত মার্কিন নাগরিকদের ‍নিরাপদ দূরত্বে থাকতে বলেছে দূতাবাস। এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ‘রাজধানী পোডরিকায় নিরাপত্তা পরিস্থিতি ভালো নয়। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল মার্কিন নাগরকিকে দূরে থাকতে বলা হচ্ছে।’

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, মধ্যরাতের আগেই হামলা চালানো হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য