দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় জেলাবাসী স্মরন করেছে ভাষা শহীদদের। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার নিদর্শনস্বরূপ ফুলে ফুলে ছেয়ে দিয়েছে গোর-এ-শহীদ বড় ময়দানে অবস্থিত শহীদ মিনারসহ জেলার প্রতিটি শহীদ মিনার। আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মহান ভাষা দিবস পালন করেছে জেলাবাসী।

২১ ফেব্রুয়ারী একুশের প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে পুষ্প অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট মো. মোস্তাফিজুর রহমান এমপির নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, জাতীয় সংসদের হুইপ ও দিনাজপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিম, জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম, দিনাজপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র নেতৃবৃন্দ, দিনাজপুর পৌরসভটার প্যানেল মেয়র আহাম্মেদুজ্জামান ডাবলু নেতৃত্বে পৌসভার কাউন্সিলরবৃন্দ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান লুলু ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ কুমার’র নেতৃত্বে প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওয়াহেদুল আলম আর্টিষ্ট ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহিন হোসেন’র নেতৃত্বে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

এছাড়া রাতে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবু বকর সিদ্দিক‘র নেতৃত্বে বোর্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক ডা. সারোয়ার জাহান’র নেতৃত্বে কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, দিনাজপুর সিভিল সার্জন ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, বিএমএ দিনাজপুর ইউনিট নেতৃবৃন্দ, এলজিইডি, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, গনপূর্ত বিভাগ, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, পানি উন্নয়ন বোর্ড, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, দিনাজপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।

সকালে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু আলী চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এমাম আলী’র নেতৃত্বে আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ, জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মো. লুৎফর রহমান মিন্টুর জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ এবং বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে যুবলীগ নেতৃবৃন্দ, রুর‌্যাল জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশনের পক্ষে রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সচিব এম এ কারী’র নেতৃত্বে সদস্যবৃন্দ, জেলা জাতীয় পার্র্টি, জাসদ, ওয়ার্ককার্স পার্টি, কমিউনিষ্ট পার্টি, জাগপা, বাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্বীর্যপূর্ণ পরিবেশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৮ পালিত হয়েছে।

এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, পেশাজীবী সংগঠন, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, সরকারী-বেসরকারী সংস্থাসহ ৪ শতাধিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। অনেকে ব্যক্তিগতভাবে ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে শহীদ মিনারে এসে শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। অনেক ছোট ছোট শিশুকেও তাদের পিতামাতার সাথে এসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দেখা গেছে।

ফুলবাড়ীঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গতকাল বুধবার যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস। আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উপলক্ষে প্রভাতফেরি করে শহীদবেদিতে ফুলদিয়ে ভাষা শহীদদের বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন, সরকারী, বে-সরকারী সংস্থা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন।

সূর্য্যদয়ের সাথে সাথে প্রভাত ফেরি করে শহীদবেদিতে পুষ্পার্পন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি, এসময় তার সাথে উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

এর পুর্বে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবসের প্রথম প্রহরে শহীদ বেদিতে পুষ্পার্পন করে, শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম এর নেতৃত্বে উপজেলা প্রসাশন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফুলবাড়ী সার্কেল) রফিকুল ইসলাম ও ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রার্প্ত কর্মকর্তা শেখ নাসিম হাবিব এর নেতৃত্বে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ প্রসাশন, পৌর মেয়র মানিক সরকারের নেতৃতে পৌর পরিষদ, মধ্যপাড়া কঠিনশীলা প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি এর উপ-মহাব্যবস্থাপক জাহিদ হোসেনের নেতৃত্বে জিটিসিসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এদিকে দিনাজপুর জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া জাকিরের নেতৃত্বে, পৃথক ভাবে শোক র‌্যালী পুষ্পার্পন করেছেন উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ। এসময়, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুরল ইসলাম বাবু, মুক্তিযোদ্ধা বিষযক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, ফুলবাড়ী উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক মেহেদী হাসান, যুগ্ম আহবায়ক আশিকুজ্জামানসহ উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের বিভিন্ন পর্য্যায়ের নেতা কর্মিরা উপস্তিত ছিলেন।

বীরগঞ্জঃ বীরগঞ্জে আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসুচী বাস্তবায়নের মাধ্যমে ২১ ফেব্ররুয়ারী আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে গত ২০ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে চিত্রাংকন, কবিতা আবৃতি, বিতর্ক ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ২১ ফেব্রুয়ারী ০০-০১ মি. উপজেলা পরিষদ চত্বরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা প্রশাসন, বীরগঞ্জ প্রেসক্লাব, আওয়ামী লীগ ও সকল অংগ সংগঠন, জাতীয় পাটিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও পেশাজীবি সংগঠন এবং সকল স্থরের পক্ষ থেকে পুস্পস্থবক অর্পন করা হয়।

সকালে বিভিন্ন স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার অংশ গ্রহনে বিশাল র‌্যালী (প্রভাত ফেরী), ইউএনও (চলতি দায়িত্ব) বিরোদা রানী রায়ের সভাপতিত্বে দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে এক আলোচনা সভায় বক্তব্য প্রদান করেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি মোঃ আমিনুল ইসলাম। আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরন করা হয়। দুপুরে মসজিদ-মন্দির-গীর্জা ও পেগডায় শহীদদের রুহের মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা করা হয়।

কাহারোলঃ দিনাজপুরের কাহারোলে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন। নানা কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারী রাত ১২ টা ১ মিনিটে উপজেলা পরিষদ চত্বরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্প স্তবক অর্পন করা হয়। সকাল ৮ টায় দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল কাহারোল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদেও প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী ও পুস্পস্তবক অর্পন করেন।

পুস্পতবক অর্পনের পরে এমপি’র নেতৃত্বে এক বিশাল সমন্বয় র‌্যালী উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ মিনারে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদের সভাপতিত্বে দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল প্রধান অতিথি হিসেবে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের উপর আলোচনা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ৫২’র ২১ ফেব্রুয়ারি স্বাধীন বাংলাদেশের ভিত্তি স্থাপিত হয়েছিল।

ভাষা আন্দোলনের সফলতা বাঙ্গালি জাতিকে স্বাধীন হওয়ার স্বপ্ন দেখিয়েছিল। ভাষার জন্য রক্ত দান, প্রাণের উৎসর্গ এমন ইতিহাস পৃথিবীতে আর কোথাও নেই, আছে শুধু বাঙ্গালির। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা পেয়েছি লাল সবুজের বাংলাদেশ। জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। উন্নত রাষ্ট্র গঠনের লক্ষ্যে সকলকে কাজ করতে হবে।

সভায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সামনের দিকে এগিয়ে যেতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানানো হয়।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাহারোল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ চৌধুরী, কৃষিকর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ শামীম, ডা. আরোজ উল্লাহ, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাফিজুল ইসলাম, শিক্ষা অফিসার মোঃ আফজাল হোসেন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কন্দর্প নারায়ন সহ উপজেলা আ’লীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভা শেষে চিত্রাংকন প্রতিযোগীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

নবাবগঞ্জঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় মহান ২১ শে ফেব্রুয়ারী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে পালিত হয়েছে। দিবসের ১ম প্রহরে রাত ১২.০১ মিনিটে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জাতীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক সহ উপজেলা প্রশাসন,পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও প্রেস ক্লাব। এছাড়াও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করন, প্রভাত ফেরী, আলোচনা সভা, চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা এবং বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা কর্মসূচীর অন্তর্ভূক্ত ছিল। প্রভাত ফেরি শেষে সকাল ৯ টায় উপজেলা চত্বরে শহীদ মিনারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মোঃ আসাদুজ্জামান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আমির হোসেন ও শিক্ষার্থী তানজিব আক্তার।

দিনাজপুর মহিলা পরিষদঃ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২১ ফেব্র“য়ারী বুধবার জেলা কার্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় সংগঠনের সভাপতি কানিজ রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহ-সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারা সানু। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জিন্নুরাইন পারু, রতœা মিত্র, মিনতি ঘোষ প্রমুখ। এর আগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে দিনাজপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একুশের প্রথম প্রহরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান, সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগমসহ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

হাবিপ্রবিঃ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্বীর্যপূর্ণ পরিবেশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৮ পালিত হয়েছে।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসনিক ভবনের সম্মুখে জাতীয় পতাকা অর্ধ-নমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সাড়ে ৬টায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মু. আবুল কাসেম-এর নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মচারীরা কালো ব্যাচ ধারণ করে প্রভাত ফেরীতে অংশ নেয়। প্রভাত ফেরী শেষে উপাচার্য শহীদদের বিদেহী আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। ক্রমান্বয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ, কর্মচারিগণ। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এরপর মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে উপাচার্য মহোদয়ের বাণী পাঠ ও বিতরণ করা হয়।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের তাৎপর্যের উপর ভিত্তি করে বিশ্ববিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. তারিকুল ইসলাম-এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মু. আবুল কাসেম। সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক (অবঃ) ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েল রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক (অবঃ) ড. শওকত আরা হোসেন। এছাড়া, অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হাবিপ্রবি শাখার ছাত্রলীগ নেতা মমিনুল হক রাব্বী, মো. রিয়াদ খান ও সাজেদুর রহমান সৈকত। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা শাখার সহকারী পরিচালক ড. মো. রাশেদুল ইসলাম।[

মুখ্য আলোচক হিসেবে আলোচনা সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক (অব.) ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন ভাষার জন্য জীবন দেয়া প্রথম জাতি হলাম আমরা বাঙালিরা। বাংলা ভাষা আমার অহংকার কারণ এর মধ্যে আছে আমার পরিচয়, আমার সত্ত্বা ও সংস্কৃতি। একুশে ফেব্রুয়ারি শুধু আর শহীদ দিবসই নয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসও। তিনি বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারি শুধু দিবস পালন করলেই চলবে না বাংলা ভাষার সঠিক ব্যবহার করতে হবে এবং বাঙালি সংস্কৃতি লালন করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মু. আবুল কাসেম বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারি একদিকে যেমন শোক ও বেদনার, অন্যদিকে তেমনি শক্তি ও প্রেরণার। ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি মায়ের ভাষা ‘বাংলা’ ও স্বতন্ত্র সংস্কৃতি। তিনি মহান ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান।

দিবসের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম।
এছাড়া, বাদ যোহর ভাষা শহীদদের উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য