আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের বকসিখামার মধ্যপাড়া ও দারিয়াপুরের মানস নদীর পাশে থেকে ৫টি স্যালো মেশিন দিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এরফলে ব্যাপক মাটি ধ্বসের আশংকা দেখা দেয়ায় ওই এলাকার বসতবাড়ি, রাস্তাঘাট ও আবাদি জমি চরম হুমকির মুখে পড়েছে।

এব্যাপারে এলাকাবাসির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদর থানার অফিসার ইনচার্জসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে জরুরী ভিত্তিতে বালু উত্তোলন বন্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানানো হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের মৌজা মালিবাড়ি, বকশি খামার এলাকায় জনৈক মিজানুর রহমান আবাদি জমিতে স্যালো মেশিন বসিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বালু উত্তোলন করে আসছে। এছাড়া রাস্তা সংলগ্ন জাফর মিয়া ও মধ্যপাড়া লেংগা নদীতে আশরাফুল ইসলাম এবং দারিয়াপুর মানস নদীর পাশে হায়দার ব্যাপারী স্যালো মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে আসছে।

বালু উত্তোলনের পর বালু বিক্রির জন্য পাওয়ার ট্রলি (কাকড়া) ও হ্যান্ডস্ ট্রাক্টরের মাধ্যমে নিয়ে যাওয়া হয়। এতে সড়কগুলোতে গভীর গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাগুলোর এখন বেহাল অবস্থা। এতে ওই সমস্ত সড়ক দিয়ে পথচারী ও যানবাহন চলাচলও মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে। তদুপরি চারপাশের আবাদি জমির মাটিও ধসে পড়তে শুরু করেছে। বালু উত্তোলনের ফলে রাস্তা-ঘাট, আবাদি জমি মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ছে।

এব্যাপারে লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান বাদল জানান, যারা বালু উত্তোলন করছে তাদের খোঁজ করা হচ্ছে। প্রয়োজনে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য