ইসমাইল সাহেব কলেজের অধ্যাপনা থেকে অবসর নিয়েছেন বেশ অনেকদিন। তার বয়স এখন বাহাত্তর। ছেলে, ছেলের বউ আর নাতনী নিয়ে সংসার। ইসমাইল সাহেবের নাতনীর নাম অনুসূয়া।

অনুসূয়া একটা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছে। দাদা নাতনির বেশ চমৎকার একটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক।

গল্পের শুরুতেই দেখা যাবে, ইসমাইল সাহেবের মন খারাপ। মন খারাপের কারণ দৈনিক পত্রিকার একটা খবর। এইচএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে নকলের অভিযোগে কয়েকজন ছাত্রকে মেজিস্ট্রেট বহিষ্কার করে।

পরীক্ষার বিষয় বাংলা। বাংলা পরীক্ষায় ছাত্ররা নকল করবে এটা ইসমাইল সাহেব মানতে পারছেন না। তিনি ঠিক করেছেন এরকম একজন ছাত্রের সঙ্গে তিনি দেখা করবেন।

ইসমাইল সাহেব তার নাতনিকে সঙ্গে নিয়ে একজন নকল করা ছাত্রের সঙ্গে দেখা করেন। একজন অভিভাবক একজন শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলেন।

এর মধ্যেই গ্রাম থেকে তিনি একটা সংবাদ পান। একটা পুরানো শিমুল গাছ কেটে ফেলার সংবাদ। খবর শুনে তিনি অস্থির হয়ে পড়েন। যে করেই হোক এই গাছ কাটা বন্ধ করতে হবে।

তিনি নানা জায়গায় ফোন করতে চেষ্টা করেন। এর মধ্যে হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে হসপিটালে ভর্তি করানো হয়।

একটা গাছ কাটা নিয়ে তিনি এরকম রিয়েক্ট করবেন কেউ ভাবতে পারেনি। অনুসুয়া তার এক বন্ধুকে নিয়ে গ্রামে ছুটে যায় যে, করেই হোক গাছ কাটা থামাতে হবে…।

কিন্তু অনুসুয়া ও তার বন্ধু গ্রামে ছুটে গিয়ে কী গাছ কাটা থেকে রক্ষা করতে পারবেন ? এ প্রশ্নের উত্তর মিলবে নাটকটি দেখার মধ্যমে।

মাসুম শাহরীয়ারের রচনায় ‘নতুন ফাগুন’ নাটকটি পরিচালনা করেছেন আবু হায়াত মাহমুদ।

এতে অভিনয় করেছেন তানজিন তিশা, ওয়াসেক, সৈয়দ হাসান ইমাম প্রমুখ। নাটকটি ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টায় চ্যানেল আইতে প্রচার হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য