ইসরায়েলের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে প্রাকৃতিক গ্যাস নিয়ে মিসরের চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী ইসরায়েলি প্রতিষ্ঠান ১০ বছরে মিরের কাছে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা মূল্যের প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করবে। এটিই ইসরায়েলের জন্য গ্যাস রফতানির সবচেয়ে বড় চুক্তি। চুক্তি হওয়ার পর সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তাদের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে আল জাজিরা।

মিসরের প্রতিষ্ঠান ডলফিনাস সোমবার বিবৃতিতে বলেছে, তারা ৬ হাজার ৪শ কোটি ঘনমিটার প্রাকৃতিক গ্যাস কিনবে ডেলেক ড্রিলিং ও তার যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগী নোবেলের কাছ থেকে। ১০ বছরে এই পরিমাণ গ্যাস মিসরে সরবরাহ করা হবে। অন্যদিকে ইসরায়েলের ডেলেক ড্রিলিং জানিয়েছে, ইসরায়েলের প্রাকৃতিক গ্যাস শিল্পে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার এই চুক্তিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় অঙ্কের রফতানির উদাহরণ।

তবে এখনও সরবরাহ লাইন নির্ধারণের কাজ বাকি। কোন পথে প্রাকৃতিক গ্যাস ইসরায়েলের ভূমধ্যসাগরীয় তামার ও লেভিথান গ্যাসক্ষেত্র থেকে মিসরে গ্যাস সরবরাহ করা হবে তা এখনও চূড়ান্ত নয়। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইএমজি পাইপলাইনও তাদের বিবেচনায় আছে।

মিসর থেকে উত্তর সিনাই উপত্যাকার আল-আরিশ হয়ে ইসরায়েলের আশকেলন পর্যন্ত বিস্তৃত এই পাইপ লাইন ব্যবহার করে মিসর থেকে ইসরায়েলে গ্যাস সরবরাহ করা হতো। নিজস্ব মজুদ থেকে ২০ বছর ধরে ইসরায়েলকে গ্যাস সরবরাহ করার চুক্তি করেছিল তারা ২০০৫ সালে। মিসরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারকের আমলে হওয়া চুক্তিটি আর কার্যকর করে রাখা যায়নি পরবর্তীতে পাইপ লাইনটি বারংবার আক্রমণের শিকার হওয়ায়। তাছাড়া সমালোচকদের অভিযোগও ছিল, ইসরায়েল যথাযথ দাম দিচ্ছিল না গ্যাসের মূল্য বাবদ।

ইসরায়েল তামার ও লেভিথান গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কার করেছে যথাক্রমে ২০০৯ ও ২০১০ সালে। তারপর ২০১৬ সালে তারা জর্ডানের সঙ্গে ১৫ বছর মেয়াদী গ্যাস সরবরাহ চুক্তি করেছিল।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এই চুক্তিকে ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ‘এতে ইসরায়েল প্রচুর টাকা আয় করতে পারবে। এই চুক্তির ফলে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা, অর্থনীতি এবং মিশরের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আরও ভালো হবে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য