লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রামে শেয়ালের কামড়ে আহত হয়েছেন এক ব্যক্তি। আহত ব্যক্তির নাম ইয়াকুব আলী (৫০)।ইয়াকুব আলী উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের হোসনাবাদ এলাকার ডাংগাপাড়ার বাসিন্দা।

তিনি ঐ এলাকার মৃত আছার উদ্দীনের ছেলে। আহত ইয়াকুব আলী বললেন,‘বাড়ির পাশে ভুট্টা ক্ষেত ছিল। ক্ষেতের পাশে বসেছিলাম আজ সকাল বেলা।

এ সময় দ্রুত গতিতে একটি শেয়াল ছুটে এসে আমার ডান হাত কামড়িয়ে ধরে আমাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

আমি নিরুপায় হয়ে অপর হাত দিয়ে শেয়ালটির গলা চেপে ধরি ও হুড়মুড় করে শেয়ালটির গায়ে পড়ি। বেকায়দায় পড়ে শেয়ালটি আমার হাত ছেড়ে দেয়। পরে স্থানীয়রা ছুটে আসে ও নাজেহাল শেয়ালটিকে মেরে ফেলে।

এ সময় অদূরেই বসে ছিল আমার বড় ভাই তইয়ব আলী (৫৫),আমার প্রতিবেশী সুধীর চন্দ্র রায় (৪০) ও দীনেশ চন্দ্র রায়। কিন্তু,তারা আমাকে সাহায্য তো করেইনি,উপরন্তু পালিয়ে যায়। আমি স্থানীয় ডাক্তার রমেশ চন্দ্র রায়ের শরণাপন্ন হই। তিনি চারটি ভেকসিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

একটি নিয়েছি।’ বাউরা বাজারের ঔষধ ব্যবসায়ি আবুল কাশেম জানান,ইয়াকুব তার এলাকার মানুষ। তিনি বিষয়টি শোনার পর ভেকসিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।ডাক্তার রমেশ চন্দ্র রায় ইয়াকুবের ভেকসিন নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য