ইন্দোনেশিয়ায় এক ছুরি হামলায় চার ব্যক্তি আহত হয়েছেন। রবিবার দেশটির ইয়োগিয়াকার্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার শিকার ব্যক্তিরা চার্চে যাওয়ার প্রাক্কালে ছুরি হামলার কবলে পড়েন।

এক পর্যায়ে গুলি চালিয়ে হামলাকারীকে নিবৃত্ত করে পুলিশ। কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

এই ছুরি হামলার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের কোনও যোগসূত্র রয়েছে কিনা সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে এরইমধ্যে তদন্তকাজ শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, তারা হামলাকারীর উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানার চেষ্টা করছে।

ধারণা করা হচ্ছে, হামলাকারী কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

ইয়োগিয়াকার্তা পুলিশের মুখপাত্র ইউলিআনতো বলেন, এ হামলার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের কোনও সংযোগ আছে কিনা; তা এখনও আমরা নিশ্চিত করতে পারছি না। তবে এটা নিশ্চিত করতে পারি যে, সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ইউলিআনতো বলেন, সন্দেহভাজন হামলাকারীর পেটে গুলি করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ছুরি হামলার প্রবণতা বেড়েছে। গত অক্টোবরে ফ্রান্সের মার্সেই শহরের প্রধান ট্রেন স্টেশনে ছুরি হামলায় এক নারী নিহত হন। পরে হামলাকারীকে গুলি করে হত্যা করে নিরাপত্তা বাহিনী। গত বছরের ৩ জুন রাত ১০টার দিকে লন্ডন ব্রিজে চলাচলকারী পথচারীদের ওপর একটি ভ্যান উঠিয়ে সন্ত্রাসীরা। এরপর তারা বরা মার্কেটে গিয়ে লোকজনকে এলোপাতাড়ি ছুরি মারতে থাকে। তিন হামলাকারীর হাতে ছিল এক ফুট লম্বা গোলাপী রঙের ছুরি। ওই ঘটনায় কিছু সময়ের জন্য লন্ডন ব্রিজ বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য