মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুরে বিএনপির মিছিলের প্রস্তুতিকালে দিনাজপুর শহরে ৩ জন ও বিরলে ৭ জনসহ ১০ বিএনপির নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) বাদ জুমা কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অংশ হিসেবে জেল রোডস্থ দিনাজপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে জুমার নামাজ শেষে জেলা বিএনপির আহবায়ক এজেডএম রেজওয়ানুল হক, যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মো. লুৎফর রহমান মিন্টু, মো. মোকাররম হোসেনসহ বিএনপির নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার পথে পুলিশ বাধা দেয়।

এ সময় বিএনপির ৩ নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। তারা হলেন-জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য মঞ্জুর মোর্শেদ সুমন, জেলা ছাত্রদল নেতা আবু সাঈদ ও শ্রমিক নেতা মো. মিজানুর রহমান মিজানকে আটক করে পুলিশ। তাদেরকে আটকের পর অন্যান্য নেতাকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এদিকে শুক্রবার দুপুরে কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচীতে অংশ নেয়ার প্রস্তুতিকালে বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ’র নেতৃত্বে বিরল উপজেলা বিএনপি সভাপতি মো. রফিকুল ইসলামসহ বিএনপি’র ৭ নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃত অন্য নেতাকর্মীরা হলেন-বিরল উপজেলা বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান, পল্লী ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুল হাকিম, যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রভাষক আবু তাহের, ছাত্রদলের সভাপতি রোস্তম আলী, বিরল সদর ইউপি বিএনপি’র সভাপতি রুহুল আমীন ও পলাশবাড়ী ইউপি বিএনপি’র যুগ্ম-আহবায়ক মোকছেদ আলী।

উল্ল্যেখ, কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শুক্রবার বাদ জুমা দিনাজপুর বিক্ষোভ মিছিল করা থাকলেও পুলিশের তৎপরতার কারণে কোথাও মিছিল করতে পারেনি বলে জানা গেছে।

এদিকে জেলার সার্বিক আইনশৃক্সখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও যে কোন ধরনের নাশকতা ঠেকাতে জেল রোডস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এছাড়া শহরের লিলিরমোড়, সদর হাসপাতাল মোড়, ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ডসহ শহর ও জেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে শুক্রবারও শহরসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য