ব্রিটেনের এক মডেলকে অপহরণ করে যৌনদাসী হিসেবে বিক্রি করতে অনলাইনে নিলামে তোলা হয়েছিল। এ সময়ে তার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়। তাকে মাদকগ্রহণে বাধ্য করা হয় এবং একটি স্যুটকেসে ভরে পরিবহন করা হয়। গত গ্রীষ্মে এ অপহরণের ঘটনা ঘটেছিল। ইতালীয় এক তদন্তকারী দল এসব তথ্য জানিয়েছে।-খবর ওয়াশিংটন পোস্ট।

বুধবার আদালতে অপহরণকারী লুকাসজ পাওয়েল হার্ভার বিরুদ্ধে শুনানিতে মডেল চোলি আয়ালিং সেই বিভৎস কাহিনীর কথা বলেন। হার্ভা লন্ডনে খণ্ডকালীন বসবাস করতেন।

আয়ালিং বলেন, অপহরণকারী তাকে অনলাইনে নিলামে তুলতে প্রস্তুতি নিচ্ছিল। একজন যৌনদাসী হিসেবে তিন লাখ ডলার পর্যন্ত দর উঠেছিল।

তিনি বলেন, এ সময়ে তাকে মাদকগ্রহণে বাধ্য করা হয়। টেপ দিয়ে মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল এবং তাকে একটি স্যুটকেসের ভেতর ঢুকিয়ে আটকে রাখা হয়। এর পর ইতালির টুরিনের বাইরে একটি খামারবাড়িতে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। আসবাবপত্রের সঙ্গে তার পা বাঁধা ছিল। নিজের হাতের ওপর মাথা রেখে তাকে ঘুমাতে হয়েছিল।

হার্ভার বিচারের শুনানিতে বুধবার তদন্তকারী দল বলে, অপহরণের সময় মডেল আয়ালিংকে চরম মানসিক চাপে রাখা হয়েছিল। গত বছর ১৭ জুলাই হার্ভাকে গ্রেফতার করে আয়ালিংকে মুক্ত করা হয়।

আয়ালিং বলেন, গত বছরের গ্রীষ্মে কালো কাপড়ে মুখ ঢাকা এক ব্যক্তি পেছন থেকে এসে আমার হাত ও মুখ চেপে ধরে। এর পর দ্বিতীয় এক ব্যক্তি আমার ডান বাহুতে ইনজেকশন পুশ করলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। এর পর আমার হাত-পা বেঁধে ও টেপ দিয়ে মুখ আটকে গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া হয়। আমি একটি স্যুটকেসের ভেতরে ছিলাম। ছোট্ট একটি ছিদ্র রাখা হয়েছিল, যাতে শ্বাস নিতে পারি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য