কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ কাহারোলে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ভবনটি দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছেন অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলা পরিষদে উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ভবনটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার বা মেরামত না করায় ফলে ভবনের বিভিন্ন স্থানে ইতোমধ্যে ছাদের প্লাষ্টার খুলে পড়ছে ও দেওয়ালে ফাঁটল দেখা দেওয়ার কারণে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা জরাজীর্ণ এবং সংস্কার বিহীন ভবনটিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অফিস করছেন প্রতিনিয়ত।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, তৎকালিন সরকার ১৯৭৭ সালে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে মহিলাদের বৃত্তি মূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ (আই,ডি,এ) প্রকল্পে অর্থায়নে ৪ কক্ষ বিশিষ্ট উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর নির্মাণ করেছেন। কিন্তু ভবনটি নির্মাণের ৪০ বছর অতিবাহিত হলেও আজ পর্যন্ত এই সরকারী ভবনটি সংস্কার বা মেরামত না করার ফলে দিন দিন ভবনের উপরের অংশ ভেঙ্গে পড়ছে এবং ভবনের দেওয়ালের বিভিন্ন স্থানে ফাঁটল দেখা দিয়েছে।

এই জরাজীর্ণ বা সংস্কার বিহীন ভবনটিতে অতি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ার পরও অত্র অফিসে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চাকুরী করার তাগিদে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অফিসের কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন প্রতিদিন।

এব্যাপারে উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা নিবেদিতা দাস জানান, আমি যে কক্ষটিতে বসে প্রতিদিন অফিসের কাজ কর্ম করছি সেই কক্ষটির উপরের কয়েকটি অংশ ইতোমধ্যে ছাদের প্লাষ্টার খুলে লোহার রড বের হয়ে পড়ছে এবং অন্যান্য স্থান যে কোন সময় ধসে পড়ার উপকরণ হয়ে পড়ছে।

বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে, যাতে অতি দ্রুত নতুন ভবন নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করার।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য