মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুরে কার্টিজ পেপার সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে রেজিস্ট্রি অফিসের সব ধরনের দলিল ও কোর্টের আইনজীবীদের স্বাভাবিক কাজ ব্যাহত হচ্ছে। কার্টিজ পেপার সংকটের কারণে সময়মত দলিল সরবরাহ করতে পারছেন না আইনজীবীরা।

এদিকে কার্টিজ পেপার সংকটের কারন দেখিয়ে ৬-১০ টাকার এই পেপার ১৫-২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা হচ্ছে। ফলে সমস্যায় পড়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১৫ ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারী মাসের ৪ পর্যন্ত দিনাজপুরে “সিকিউরিটি প্লেইন পেপার” বা কার্টিজ পেপার সংকট দেখা দিয়েছে। ওই পেপার সংকটের কারণে আগে যেখানে এক প্যাকেট কার্টিজ পেপার (৪৮০পিচ) ২২০০ (দুই হাজার দুইশত) টাকা বিক্রি করা হতো। সেখানে বর্তমানে ওই এক প্যাকেট পেপার ৫ হাজার হতে ৫ হাজার ২শ’ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা হচ্ছে। মূল্য বৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষকে বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে।

কার্টিজ পেপার রেজিস্ট্রি অফিসের সক ধরনের দলিল, কোর্টে দেওয়ানী আদালতে মামলা দায়েরের কাজ, সকল দলিলের স্ট্যাম্প ছাড়া অতিরিক্ত সীটসহ অন্যান্য মামলা ও দলিলে এই কার্টিজ পেপার ব্যবহার করা হয়। কিন্তু গত প্রায় দুই মাস ধরে এই পেপার সংকটের কারণে সংশ্লিষ্টরা চরম বিড়ম্বনার শিকার হয়েছেন। কার্টিজ পেপার সংকটের কারণে আইনজীবীসহ সংশ্লিষ্টরা সময়মত দলিল সরবরাহ করতে পারছেন না।

দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এ্যাড. মোল্লা মো. সাখাওয়াত হোসেন, এ্যাড. মো. আসির উদ্দিন, এ্যাড. মো. বরকত আলীসহ আরো কয়েকজন আইনজীবী জানান, আগে প্রতি পিচ কার্টিজ পেপার ৬-১০ টাকা করে বিক্রি হতো। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে কার্টিজ পেপারের সংকট দেখা দিয়েছে। কার্টিজ পেপারের সংকটের কারণে বর্তমানে প্রতি পিচ কার্টিজ পেপার ১৫-২০ টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। কার্টিজ পেপারের সংকটের কারণে আমরা সময়মত গ্রাহকের দলিল সরবরাহ করতে পারছি না। এতে করে সাধারণ মানুষ পড়েছেন বিপাকে।

উল্লেখ্য, ট্রেজারী অফিস হতে নির্ধারিত ভেন্ডারের মাধ্যমে এই কার্টিজ পেপার সরবরাহ করা হয়। ভেন্ডাররা এই পেপার আইনজীবীসহ সংশ্লিষ্টদের মাঝে সরবরাহ করে থাকেন। কিন্তু গত প্রায় দুই মাস ধরে এই পেপার সংকটের কারণে আইনজীবীসহ সংশ্লিষ্টরা চরম বিড়ম্বনায় পড়েছেন। তাই দ্রুত কার্টিজ পেপার সরবরাহ করে সংকট সমাধানের দাবী জানিয়েছেন আইনজীবীসহ সংশ্লিষ্টরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য