সংবাদ সম্মেলনঃ বোনের ধর্ষনকারীর বিচার চাইতে গিয়ে পুলিশ আপন ভাইকে আসামী করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। একদিকে ধর্ষনের অভিশাপ অপরদিকে পুলিশের নির্যাতনে অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবারটি আজ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। এলাকার জনপ্রতিনিধিও অর্থের লোভে ধর্ষনের মত একটি সামাজিক অপরাধকে ধামাচাপা দিতে ধর্ষনকারীর পক্ষ নিয়ে আপোষ মিমাংশার চাপায় ‘দিচ্ছে।

রবিবার দিনাজপুর প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে ধর্ষিতা মেয়েটি সহ পরিবারের সদস্যরা কান্নাজড়িত কন্ঠে উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে ঘটনার বর্ননা দিচ্ছিলেন। বোচাগঞ্চ উপজেলার রনগাও ইউনিয়নের বাসুদেবপুর গ্রামের দিনমজুর ক্ষিতিশ চন্দ্র দেব শর্মার কনিষ্ট মেয়ে ।

এলাকার একটি দোকানের কর্মচারী জনৈক পরিতোষ চন্দ্র দেব শর্মা মেয়েটিকে মিথ্যা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২০১৬ সালের ২ রা ডিসেম্বর বাড়ীতে একা পেয়ে জোড়পুর্বক ধর্ষন করে। একথা কাউকে না বলতে নিষেধ করে ভয়ভীতি দেখিয়ে বেশ কয়েকবার ধর্ষন করে। পররর্তীতে মেযেটি গর্ভবর্তী বয়ে পড়লে পরিতোষকে বিয়ে করার কথা বললে সে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।

কোন উপায়ন্তর না পেয়ে বোচাগঞ্চ থানায় মামলা করতে গেলে থানা মামলা নিতে তালবাহানা করে । বাধ্য হয়ে মেয়ের বাবা ২০১৭ সালের ৫ মে পরিতোষ চন্দ্র দেব শর্মাকে আসামী করে দিনাজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে মামলা করেন। এতাকিছুর পরেও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বোচাগঞ্জ থানার এসআই মোঃ তালেব মামলাটি ভিন্নখাতে প্রবাহের জন্যে ষড়যন্ত্র করেই যাচ্ছেন।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়েছে, গত ২৮/০১/১৮ তারিখে মামলার বিষয়ে আমাদের থানায় ডেকে আইও মোঃ তালেব দীর্ঘক্ষন থানায় বসিয়ে রেখে মামলা প্রত্যাহারের জন্যে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ব্যর্থ হলে আমার ভাই শ্রী প্রদীপ চন্দ্র দেব শর্ম্মাকে রেখে সবাইকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। পরে ২৯/০১/১৮ তারিখে চক্রান্তমুলক ভাবে আমার ভাই প্রদীপ চন্দ্র দেব শর্ম্মা আমাকে ধর্ষন করেছে মর্ম্মে গ্রেফতার দেখিয়ে কোর্টে চালান কওে দিয়েছে যা সত্যেও বিরুদ্ধে চরম মিথ্যাচার। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তালেব এখানে ক্ষান্ত হননি তিনি পরিবারের অন্যান্য অভিভাবকদের এমামলায় ফাঁসানোর হুমকী দিয়ে বাড়িতে হানা দিচ্ছে।

তারা জানান,অত্যান্ত দরিদ্র হওয়ার কারনে পুলিশ বিত্তশালীদের পক্ষ নিয়ে অর্থের বিনিময়ে মামলাটি ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা চালাচ্ছে। প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের কাছে প্রকৃত ধর্ষনকারী পরিতোষ চন্দ্র দেব শর্ম্মার কঠোর শাস্তি এবং তার ভাই প্রদীপ চন্দ্রকে মামলা হতে অব্যাহতিসহ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার ষড়যন্ত্রমুলক কর্মকান্ডের সুষ্ঠতদন্ত সাপেক্ষে বিচার প্রত্যাশা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,ক্ষিতিষ চন্দ্র রায়,আধিকা রানী,কৃপারানী,পরনজীৎ চন্দ্র দেব শর্ম্মা প্রমুখ। ক্ষতিগ্রস্থ্য নারীর পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রিপন রিপন চন্দ্র দেব শর্ম্মা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য