দিনাজপুর সংবাদাতাঃ পল্লীশ্রীর বাস্তবায়নে অক্সফ্যাম এর সহযোগিতায় আমি এক এবং অনেক প্রকল্পের আওতায় সমাজ নেতৃস্থানীয় প্রতিনিধিদের সংবেদনশীলতা কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী অফিসার মোঃ আবদুর রহমান।

২৮ জানুয়ারি রোববার দিনাজপুর পল্লীশ্রী মিলনায়তনে পল্লীশ্রীর বাস্তবায়নে অক্সফ্যাম এর সহযোগিতায় আমি এক এবং অনেক প্রকল্পের আওতায় সমাজ নেতৃস্থানীয় প্রতিনিধিদের সংবেদনশীলতা কর্মশালা অনুষ্ঠিত কর্মশালায় কমরেড আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন হাবিপ্রবি’র সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আশরাফি বিনতে আকরাম, সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসমিন লুনা, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান তারিকুন বেগম লাবুন, রিজ স্কুলের অধ্যক্ষ মোঃ সফিকুল ইসলাম, মসজিদের ইমাম ও খতিব মোঃ আনোয়ার হোসেন, কসবা মিশনের পুরোহিত ফাদার সিলাস কুজুর, মাদ্রাসার শিক্ষক মোছাঃ জ্যেসমিন আরা প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন পল্লীশ্রী’র ম্যানেজার মোঃ সেলিম রেজা। সঞ্চালনায় ছিলেন প্রকল্প ম্যানেজার শামসুর নাহার, সহযোগিতা করেন সমন্বয়কারী শামীমা পপি।

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, বিগত কয়েক দশক ধরে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে ধর্মকে অপব্যবহার করে ও সাধারণ মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিকে পূঁজি করে কিছু বিচ্ছিন্ন ও ভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী দল বা গোষ্ঠী নিজেদের স্বার্থে দ্বন্দ্ব, সংঘাত, নির্যাতন এবং সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তারা বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে, বিনষ্ট করছে সামাজিক সহবস্থান, পারস্পারিক শ্রদ্ধাবোধ ও সম্প্রীতি। যার মধ্য দিয়ে বিনষ্ট হচ্ছে বাংলাদেশের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি।

এই অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে, তরুণ সমাজকে অসম্প্রদায়িক ও ধর্মনিপেক্ষ দেশাত্মবোধের চেতনায় উজ্জীবিত করতে এবং সামাজিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য বজায় রাখতে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে বক্তারা কর্মশালার মাধ্যমে নিজ নিজ অবস্থান থেকে যুব সমাজের সচেতনতা তৈরীর ক্ষেত্রে সহযোগিতা এবং নিজেদের সংবেদনশীলতা থেকে সামাজিক সম্প্রীতি তৈরির কাজ করবেন এবং যুব সমাজকে সহযোগিতা করার আশ্বাস প্রদান করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য