আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী সীমান্তে ভারতীয় বিএসএফের নির্যাতনে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সীমান্তের ৮৩৬ নম্বর মেইন পিলারের কাছ থেকে রোববার (২৮ জানুয়ারি) ভোরে তাকে উদ্ধার করা হয়।

পরে পাটগ্রাম উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে মারা যান। নিহত মঞ্জু আলম উপজেলার উফারমারা (নাটারবাড়ী) এলাকার আসাদুল ইসলামের ছেলে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রোববার (২৮ জানুয়ারি) ভোরে মঞ্জু আলমসহ কয়েকজন গরু পারাপারকারী রাখাল বুড়িমারী সীমান্তের ৮৩৬ নম্বর পিলারের নিকট দিয়ে ভারতে গরু আনতে গেলে ভারতীয়-৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের খরখরিয়া ক্যাম্পের একটি টহলদল মঞ্জু আলমকে আটক করে বেদম মারপিট করে ওই সীমান্তে ফেলে রেখে চলে যায়।

পরে মঞ্জু আলমের সঙ্গীরা গিয়ে তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করেন। সেখান থেকে পাটগ্রাম উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে পাটগ্রাম উপজেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ রফিকুল ইসলাম সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

রংপর-৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মেজর মুনীরুজ্জামান মঞ্জু আলমের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় বিজিবি-বিএসএফের কোম্পানী কমান্ডার লেভেলে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানিয়ে বিএসএফকে একটি প্রতিবাদপত্র পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য