নেদারল্যান্ডসের হগ শহরে চার মুখোশধারীর হামলার শিকার হয়েছে আজারবাইজান ও তুরস্কের যৌথভাবে প্রতিষ্ঠিত একটি সাংস্কৃতিক কার্যালয়।

স্থানীয় সময় শনিবার রাত ২.৩০ মিনিটে ওই হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

কাছের একটি ক্যাফেতে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ওই সংস্থার প্রধান ইলহান আসকিন আনাদোলুকে জানিয়েছেন, চার মুখোশধারীকে ভাঙচুর চালাতে দেখে তারা ছুটে যাওয়ার আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এছাড়া ভবন ও পাশের ক্যাফেতে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরায় চার মুখোশধারীকে পাথর দিয়ে ভবনের কাঁচ ভাঙার চেষ্টা করতে দেখা গেছে।

এই হামলা সত্ত্বেও নেদারল্যান্ডসে বসবাসরত তুরস্কের লোকজনের শান্তি ভঙ্গ হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

আনাদোলুর খবরে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে ইউরোপীয় দেশগুলো বিশেষ করে জার্মানিতে অন্তত ছয়টি মসজিদ সিরিয় এবং কুর্দি সমর্থকদের হামলার লক্ষ্যবস্তু হয়েছে।

কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন (পিকেকে) জার্মানিতে ১৯৯৩ সাল থেকে নিষিদ্ধ। দেশটিতে কুর্দি অভিবাসীদের মধ্যে অন্তত ১৪ হাজার সমর্থক রয়েছে বলে ধারণা করা হয়ে থাকে। জার্মানির বিভিন্ন শহরে এসব সমর্থকরা সিরিয়ায় কুর্দি বিদ্রোহীদের ওপর তুরস্কের চলমান অলিভ ব্রাঞ্চ অভিযানের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখিয়েছে।
গত সপ্তাহে সিরিয়ার আফরিন শহরের বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণ করতে অভিযান শুরু করে তুরস্কের সেনাবাহিনী। দেশটি দাবি করেছে গত কয়েক দিনে অলিভ ব্রাঞ্চ নামের এই অভিযানে চারশোরও বেশি বিদ্রোহীকে ‘নিরস্ত্র’ করেছে তারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য