উচ্চতা ও বয়সের তুলনায় অতিরিক্ত ওজন যেমন নানা রোগের কারণ, তেমনি কম ওজনও ক্ষতিকর। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে চাইলে বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী সঠিক ওজন থাকা খুব জরুরি। ওজন কম থাকলে সেটি বাড়াতে পারেন নিয়ম মেনে। জেনে নিন ওজন বাড়াতে চাইলে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় কোন কোন খাবার রাখবেন।

ওজন বাড়াতে চাইছেন?

– লাল মাংসে প্রচুর পরিমাণে কোলেস্টেরল থাকলেও এটি বাড়ানোর জন্য সহায়ক। লাল মাংসে রয়েছে প্রোটিন, আয়রন ও ফ্যাট। ওজন বাড়াতে চাইলে অলিভ অয়েল দিয়ে স্বাস্থ্যকর উপায়ে রান্না করা মাংস খেতে পারেন নিয়মিত।

– ওজন বাড়াতে চাইলে প্রতিদিন পিনাট বাটার খান। এতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন ও ফ্যাট রয়েছে। এছাড়া ম্যাগনেসিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন বি ও ভিটামিন ই রয়েছে এই বাটারে। প্রতিদিন সকালের নাস্তায় ব্রেডের সঙ্গে খেতে পারেন পিনাট বাটার।

– প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এক গ্লাস দুধ রাখুন। দুধ যেন ফ্যাট ছাড়া না হয় সেদিকে লক্ষ রাখবেন।
– আম ও আনারসের মতো প্রাকৃতিক চিনিযুক্ত ফল খান নিয়মিত।

– ওজন বাড়াতে চাইলে প্রতিদিন সকালের নাস্তায় ময়দার রুটি রাখুন। ফাইবার ও এমন কিছু মিনারেল রয়েছে ময়দার রুটিতে যা অন্য রুটিতে নেই।

– মাখন খেতে পারেন প্রতিদিন। রান্নায় তেলের বদলে মাখন ব্যবহার করা যেতে পারে। উচ্চ ক্যালোরি সম্পন্ন মাখন ওজন বাড়াতে সাহায্য করবে। তবে অতিরিক্ত মাখন খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক।

– নিয়মিত ঘি খেলে ওজন বাড়ে। চর্বি ছাড়াও ফ্যাটি অ্যাসিড ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে ঘিতে।

– স্ন্যাকস হিসেবে বাদাম খেতে পারেন প্রতিদিন। বাদামে রয়েছে চর্বিজাতীয় উপাদান ও বিভিন্ন পুষ্টিগুণ যা ওজন বাড়ায়।

– আলু খান প্রতিদিন। প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট পাওয়া যায় আলু থেকে যা ওজন দ্রুত বাড়াতে সাহায্য করে।

– পটাসিয়াম, কার্বোহাইড্রেট ও নানা রকম প্রয়োজনীয় পুষ্টির যোগান দেয় কলা। ওজন বাড়াতে চাইলে তাই প্রতিদিন কলা খাওয়ার বিকল্প নেই।

– দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় পনির রাখুন। প্রচুর পরিমাণে ফ্যাটজাতীয় উপাদান পাওয়া যায় পনির থেকে যা দ্রুত আপনার ওজন বাড়াবে।

জেনে নিন

– মানসিক চাপমুক্ত থাকার চেষ্টা করুন।
– দীর্ঘসময় না খেয়ে থাকবেন না। ২ ঘণ্টা পরপরই কিছু না কিছু খান।
– মোটা হওয়ার জন্য অস্বাস্থ্যকর খাবার খাবেন না। এটা আপনার শরীরের জন্য স্থায়ী ক্ষতির কারণ হবে।
– সকালে ভারি নাস্তা খাবেন। এটি সারাদিন আপনাকে কর্মক্ষম রাখবে।
– রাতে ৮ ঘণ্টা ঘুম জরুরি।
– হালকা হাঁটাহাঁটি ও ব্যায়াম আপনাকে ফিট রাখবে।

তথ্য: বোল্ডস্কাই

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য