সিরিয়ার দেইর আয-যৌর প্রদেশে দায়েশ সন্ত্রাসীদের ঘাঁটি থেকে বিপুল পরিমাণ ইসরাইলি অস্ত্র উদ্ধার করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা জানিয়েছে, প্রদেশের সায়াল ও হাসরাত গ্রাম এবং জালা শহর থেকে ইসরাইলের তৈরি ল্যান্ড মাইন, বিস্ফোরক ও রাসায়নিক অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। দায়েশ সন্ত্রাসীরা পালানোর সময় এসব অস্ত্র ফেলে রেখে গেছে।

সিরিয়ায় দায়েশ সন্ত্রাসীদের আস্তানা থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগেও বহু বার এ ধরনের অস্ত্র পাওয়া গেছে।

গত ১০ ডিসেম্বর সিরিয়ার সেনাবাহিনী দায়েশের আস্তানা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি অস্ত্র উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ট্যাঙ্ক, সামরিক যান, ল্যান্ড মাইন, গাড়ি বোমাসহ বিভিন্ন ধরনের বিস্ফোরক ও যোগাযোগ সরঞ্জামও ছিল।

সিরিয়ার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সেনা কমান্ডার বলেছেন, এসব অস্ত্রই প্রমাণ করে এ অঞ্চলের ভেতরের ও বাইরের বিভিন্ন দেশ দায়েশকে সরাসরি অস্ত্র দিচ্ছে। গত ১৯ অক্টোবরেও দেইর আয-যৌরের মায়াদিন শহর থেকে বিপুল পরিমাণ ইসরাইলি অস্ত্র উদ্ধার করে সিরিয়ার সেনাবাহিনী।

এর আগে দায়েশ সন্ত্রাসীদেরকে ইসরাইলি হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে আবারও সিরিয়ায় পাঠানোর খবর খোদ ইহুদিবাদী গণমাধ্যমেই প্রকাশিত হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে দায়েশকে আইএস ও আইএসআইএল নামেও অভিহিত করা হয়ে থাকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য