যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে করা বিশেষ তদন্ত দলের প্রধান রবার্ট মুলারকে গত বছরের জুনেই বরখাস্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ট্রাম্পের হোয়াইট হাউসের আইনজীবী পদত্যাগের হুমকি দিলে প্রেসিডেন্ট সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন বলে দাবি মার্কিন গণমাধ্যমগুলোর।

এক প্রতিবেদনে নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, হোয়াইট হাউসের উপদেষ্টা ডোনাল্ড ম্যাকগান তখন মুলারকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত প্রেসিডেন্সির ওপর ‘ভয়াবহ প্রভাব’ ফেলবে বলেও মন্তব্য করেছিলেন।

২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের সময় রিপাবলিকান শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার কোনো সংযোগ ছিল কিনা, মস্কো নির্বাচনকে প্রভাবিত করেছিল কিনা মুলারের তদন্তে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ট্রাম্প ও ক্রেমলিন বরাবরই এ ধরণের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

এফবিআইয়ের পরিচালক জেমস কোমিকে বরখাস্তের পর গত বছরের মে মাসে এফবিআইএ-র সাবেক পরিচালক মুলারকে নিয়োগ দেওয়া হয়।

কোমি পরে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, রাশিয়া বিষয়ে তদন্তের কারণেই ট্রাম্প তাকে বরখাস্ত করেছিলেন। কোমিকে বরখাস্তের মাধ্যমে ট্রাম্প আইন ভঙ্গ করেছিলেন কিনা মুলারের তদন্তে তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

রাশিয়া বিষয়ক সংযোগ নিয়ে তদন্তে হোয়াইট হা্উসের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তাদের জেরার মধ্যেই মুলার তাকে বরখাস্তে ট্রাম্পের চেষ্টার কথা জেনেছেন বলেও নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

প্রতিবেদন বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে হোয়াইট হাউসের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, প্রেসিডেন্ট যে মুলারকে বরখাস্ত করার চেষ্টা করেছিলেন, ডিসেম্বরেই তার ইঙ্গিত পাওয়া যায়।

এ নিয়ে ডেমোক্রেট পার্টির পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়েছে; তারা বলেছে, মুলারকে বরখাস্ত করা হলে তার পরিণতি হবে ভয়াবহ।

“স্পেশাল কাউন্সেলকে বরখাস্ত করা হবে লাল দাগ অতিক্রমের মতো ব্যাপার, প্রেসিডেন্টও যা অতিক্রম করতে পারেন না,” বলেন সিনেট ইন্টিলিজেন্স কমিটির ডেমোক্রেট ভাইস চেয়ারম্যান মার্ক ওয়ার্নার।

বুধবার ট্রাম্প বলেছেন, রাশিয়া বিষয়ক মুলারের তদন্তে সাক্ষ্য দিতে প্রস্তুত আছেন তিনি। এর আগে ট্রাম্পের অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনসও বিশেষ কাউন্সেলর মুলারের জেরার মুখোমুখি হয়েছেন৷

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ট্রাম্পকে জেরা করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কিভাবে এটি নেওয়া হবে তা নিয়ে ট্রাম্পের আইনজীবীরা মুলারের তদন্ত দলের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছেন বলেও বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য