বিরলে চালককে হত্যার পর ছিনতাইকৃত ইজিবাইক উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। হত্যা রহস্য উন্মোচনের পথে পুলিশ দ্রুত এগোচ্ছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে আটককৃত ৩জনকে পুলিশ আদালতে সোপর্দ করলে বিজ্ঞ বিচারক তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

নিহত ইজি বাইক চালক উপজেলার ধামইর ইউপি’র বাজনাহার (চেয়ারম্যানপাড়া) গ্রামের মৃত আইন উদ্দীনের পুত্র মইনুল ইসলাম (২৭) ইজি বাইক ছিনতাই করতে বাঁধা দেয়ায় তাঁকে ছিনতাইকারীরা হত্যা করে থাকতে পারে বলে পরিবারের ধারণা আরো ঘণীভূত হচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলার ফরাক্কাবাদ ইউনিয়নের তৈয়বপুর নামক স্থানে মেসার্স আলী ফিলিং স্টেশন সংলগ্ন দিনাজপুর-বোচাগঞ্জ সড়কের একটি কালভার্টের নিচে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মইনুল ইসলামের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

দুপুরে দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়না তদন্তের জন্য লাশ প্রেরণ করে পুলিশ। ময়না তদন্ত শেষে ঐদিনই পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হলে তাঁর দাফন সম্পন্ন করা হয়।

বৃহস্পতিবার ঘটনার বিষয়ে বিরল থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ আবদুল মজিদ জানান, নিহতর ভাই মজিবুর রহমান ঐদিনই বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। ঘটনায় একই এলাকার ভোলার পুত্র ইউসুফ (২৮), কফ’র পুত্র আলমগীর (২৭) ও মঞ্জুরুল ইসলামের পুত্র মামুনুর রশীদ (২৭) কে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বুধবার রাতে দিনাজপুর সদরের মুদিপাড়া এলাকার মৃত রহিম উদ্দীনের পুত্র রাহিল আম্বার কালু’র পায়রাঘর গ্যারেজ থেকে ছিনতাইকৃত ইজিবাইকটি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বিরল থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ উদ্ধার করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য