রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির গঠিত আন্তর্জাতিক পরামর্শক প্যানেল থেকে পদত্যাগ করেছেন মার্কিন কূটনীতিক বিল রিচার্ডসন।

তিনি বলেছেন, আন্তর্জাতিক ওই পরামর্শক প্যানেল কেবলই লোক দেখানো। রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে সু চির নৈতিক অবস্থান নিয়েও তিনি প্রশ্ন তুলেছেন।

সেনাবাহিনীর দমনপীড়নের মুখে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে গত পাঁচ মাসে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ সেনাবাহিনীর ওই অভিযানকে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ হিসেবে বর্ণনা করে আসছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ক্লিনটন সরকারের কেবিনেট সদস্য রিচার্ডসন রয়টার্সকে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমার পদত্যাগের প্রধান কারণ হল, ওই পরামর্শক প্যানেল আসলে হোয়াইটওয়াশ। সরকারের চিয়ারলিডিং স্কোয়াডের সদস্য হয়ে থাকার কোনো ইচ্ছা আমার নেই।”

গত সোমবার ওই প্যানেলের সদস্যদের সঙ্গে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর সু চির বৈঠক ছিল। রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে খবর সংগ্রহের দায়িত্বে থাকা রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইনে বিচারের মুখোমুখি করার বিষয়টি রিচার্ডসন সেখানে তুললে সু চির সঙ্গে তার বাদানুবাদ হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো রাজ্যের সাবেক গভর্নর রিচার্ডসন বলেন, ওই প্রসঙ্গ তোলায় সু চি ক্ষেপে ওঠেন এবং সাফ জানিয়ে দেন, সাংবাদিকদের নিয়ে ওই ঘটনা পরামর্শক প্যানেলের দেখার বিষয় নয়।

রয়টার্স লিখেছে, রিচার্ডসনের এই বক্তব্যের বিষয়ে সু চি বা তার মুখপাত্র জ তাইয়ের বক্তব্য জানা যায়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য