২৪জানুয়ারী বুধবার কুড়িগ্রামের রাজারহাটে দূর্বৃত্তরা শ্বাসরুদ্ধ করে এক যুবককে হত্যা পর লাশ রেলের ধারে ফেলে দিয়ে ইজিবাইক ছিনতাই করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানান, ২৪জানুয়ারী বুধবার সকালে পথচারীরা কুড়িগ্রাম-রাজারহাট সড়কের ঠাটমারী ব্রীজের পাশে রেলের ধারে হাত পা মুখ বাধা অবস্থায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দেয়।

এতে এলাকাবাসীরা ছুটে এসে লাশ শনাক্ত করার চেষ্টা করে। ঘটনাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে শত শত মানুষ লাশ দেখতে ওই এলাকায় ভিড় জমাতে থাকে।

এদিকে নিখোঁজ যুবকের পরিবার ও আত্মীয় স্বজন লাশের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ শনাক্ত করে। হত্যাকান্ডের শিকার ওই যুবক ইজিবাইক চালক। তার নাম জুয়েল মিয়া(২৫)।

সে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পলাশবাড়ী চকিদার পাড়া গ্রামের রমজান আলীর পুত্র বলে জানা গেছে। হত্যাকান্ডের শিকার ওই যুবক গত ২৩জানুয়ারী মঙ্গলবার রাতে বাড়ীতে ফোন করে বাড়ী আসার কথা বলে আর ফিরে নাই।

রাতে তাকে বেশ কয়েকবার ফোন করেও তার ফোনটি বন্ধ পায় বলে নিহতের পিতা ও আত্মীয় স্বজন জানান। সকালে লাশের খবর পেয়ে তারা ছুটে আসে।

যুবকের পড়নে কালো প্যান্ট, দোরা কাটা গ্যাঞ্জি জ্যাকেট, পায়ে কালো হাই কেস ছিল। দূর্বৃত্তরা রাতের যে কোন সময় তাকে মুখে কাপড় ও হাত-পা দঁড়ি দিয়ে বেঁধে শ্বাস রোধকরে গলার ডান পাশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেঁটে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়।

তবে তার ইজিবাইক ও একটি এন্ডরেড টাচ্ মোবাইল ফোন পাওয়া যায়নি। অনেকে ইজিবাইক ছিনতাই করা উদ্দেশ্যে হত্যা করা হতে পারে বলে ধারনা করেন। কিন্তু তাকে যেভাবে বেঁধে হত্যা করা হয়েছে এটি পূর্ব শত্রুতার জেরও হতে পারে বলে পুলিশের ধারনা করছে।

এব্যাপারে রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোখলেসুর রহমান বলেন, তদন্ত করে হত্যাকান্ডের মোটিভ উদ্ধার করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য