আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: পরকীয়া প্রেম রক্ষায় প্রেমিকের সহযোগিতায় স্বামীকে জবাই করে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রী বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার জোংরা সরকারেরহাট এলাকায় এ হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটে। পুলিশ হত্যাকান্ডের শিকার হামিদার রহমানের লাশ উদ্ধার করে বুধবার সকালে মর্গে প্রেরণ করেছে।

ওই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ স্ত্রীসহ দুই জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করাছে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকার সাহানদ হোসেনের পুত্র হামিদার রহমানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের সাথে প্রতিবেশী জহর আলীর পুত্র সিরাজুল ইসলামের পরকীয়া প্রেম গড়ে উঠে।

এ নিয়ে একাধিক বার গ্রাম্য শালিশ হলেও ওই দুই জনের পরকীয়া থেকেই যায়। গত মঙ্গলবার সকালে হামিদার রহমান তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে পরকীয়ার জের ধরে গালি গালাজ করেন। রাতে ওই ঘটনার জের ধরে স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ও তার পরকীয়া প্রেমিক সিরাজুল ইসলামসহ কয়েকজন হামিদার রহমানকে তার বাড়িতে দা দিয়ে গলা কেটে জবাই করে হত্যা করেন।

পরে তারা ওই হত্যা কান্ডকে আত্নহত্যা হিসাবে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে পাটগ্রাম থানা পুলিশ রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে হামিদার রহমানে স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ও প্রতিবেশী কান্দুরা শেখের পুত্র খতিবর রহমানকে আটক করেন পুলিশ।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, পরকীয়া প্রেমের কারণেই এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করার পাশাপাশি ওই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে স্ত্রীসহ দুই জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য