‘পদ্মাবত’ চলচ্চিত্র নিয়ে সহিংস প্রতিবাদের জেরে গত কয়েক শতাব্দির ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে রাজস্থানের ঐতিহাসিক চিতোর দুর্গ।

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের আদেশ সত্ত্বেও বলিউডের চলচ্চিত্রটি রাজস্থানে মুক্তি পাবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়ে গেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

বিতর্কিত এই চলচ্চিত্রটি রাজস্থানে দেখানো হবে না বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন পরিবেশকরা।

রাজপুত রানি পদ্মীনির কাহিনীকে ভিত্তি করে এই চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করা হয়েছে।সপ্তম শতাব্দিতে নির্মিত এই চিতোর দুর্গেই পদ্মাবতীর কাহিনীর জন্ম হয়। দুর্গটি ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্য স্থাপনাগুলোর মধ্যে অন্যতম।

‘পদ্মাবত’ চলচ্চিত্রের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া প্রতিবাদের নেতৃত্ব দেওয়া করনি সেনারা মঙ্গলবার রাতে দুর্গটিতে প্রবেশের চেষ্টা করার পর সেটি সিল করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

চলচ্চিত্রটি রাজস্থানে দেখানো হলে কয়েক হাজার রাজপুত নারী এই দুর্গটিতে গিয়ে আত্মাহুতি দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

কিংবদন্তি অনুযায়ী, সুলতান আলাউদ্দিন খিলজি রানি পদ্মীনিকে ধরার চেষ্টা করলে সম্মান বাঁচাতে পদ্মীনি চিতোর দুর্গের একটি অগ্নিকুণ্ডে ঝাঁপ দিয়ে আত্মাহুতি দিয়েছিলেন।

পদ্মীনির জন্য আলাউদ্দিন খিলজি চিতোর দুর্গ জয় করার লক্ষ্যে বেশ কয়েকবার সামরিক অভিযান চালিয়েছিলেন।

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে আশঙ্কায় ছবিটি রাজস্থানে নিষিদ্ধ করার অনুমতি দেওয়ার আবেদন করেছিল রাজ্য কর্তৃপক্ষ, কিন্তু মঙ্গলবার ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট তাদের আবেদন প্রত্যাখ্যান করে ছবিটিকে রাজস্থানে মুক্তির অনুমতি দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

চলতি মাসের প্রথমদিকে ভারতীয় সেন্সর বোর্ড চলচ্চিত্রটিকে ছাড়পত্র দিলেও রাজস্থানসহ হরিয়ানা, গুজরাট ও মধ্যপ্রদেশ ছবিটিকে নিষিদ্ধ করেছিল।

পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালির এই সিনেমায় চিতোরের রানি পদ্মাবতী চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। এতে পদ্মাবতীর স্বামী রাজা রাওয়াল রতন সিং এর ভূমিকায় শহীদ কাপুর এবং দিল্লীর সুলতান আলাউদ্দিন খিলজীর চরিত্রে রণবীর সিং অভিনয় করেছেন।

এক বছর আগে রাজস্থানে চলচ্চিত্রটির শ্যুটিং চলাকালে করনি সেনার কর্মীরা পরিচালক বনসালির ওপর হামলা চালিয়ে চলচ্চিত্রটির সেট ভাংচুর করেছিল। হামলাকারীদের অভিযোগ, চলচ্চিত্রটিতে রানি পদ্মীনির সঙ্গে খিলজির প্রেম দেখানো হয়েছে; এই অভিযোগ জোরালোভাবে অস্বীকার করেছেন চলচ্চিত্রটির নির্মাণকারীরা।

চলতি মাসের প্রথমদিকে ছবিটির ছাড়পত্র দেওয়ার সময় সেন্সর বোর্ড ছবিটির কয়েকটি অংশে কাচি চালায়, এর মধ্যে ছবিটির নামও আছে। তারপর ছবিটির নাম ‘পদ্মাবতী’ থেকে ‘পদ্মাবত’ করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য