আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি একক ভাবে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে। এরইমধ্যে আমাদের প্রার্থীও ঠিক হয়ে গেছে। তাই আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সাথে জোট করার প্রশ্নই ওঠে না বলে জানিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টিও চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ। মঙ্গলবার তিন দিনের সফরে এসে রংপুর সার্কিট হাউসে এরশাদ সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

এসময় এরশাদ আরো বলেন, `বিএনপির আমলে আমাকে জেলে দিয়ে ধুকে ধুকে মারতে চেয়েছিল। কিন্তু রংপুরের মানুষের ভালোবাসায় আমি আবার নতুন জীবন পেয়েছি। বিএনপি নির্বাচনে যাক বা না যাক আমরা নির্বাচনে যাব। আমাদের অবস্থান অনেক ভালো। দেশের মানুষ আবার জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়।’

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ আরো বলেন, `সম্প্রতি রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আমাদের দলের প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে এক লাখ ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে জয়লাভ করেছে। এ থেকে আমরা বুঝতে পারছি, দেশের মানুষ জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। কারণ জাপার ৯ বছরে দেশের মানুষ শান্তিতে ছিল। সে সময় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম ছিল মানুষের নাগালের মধ্যে।

আমার আমলে দেশের মানুষ খেয়ে-পরে স্বাচ্ছন্দে ছিল। নিরাপদে ছিল। তাই এবার আমরা ৩০০ আসনে প্রার্থী দেব এবং আগের চেয়ে অনেক ভালো করব। আর সে লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠে কাজ করে যাচ্ছি। দলীয় নেতাকর্মীরাও মাঠে রয়েছেন।`

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাপার কেন্দ্রীয় সদস্য ও স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, রংপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াছির, জেলা যুবসংহতির আহ্বায়ক আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ। এর আগে জাপা চেয়ারম্যান এরশাদ সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণ করলে স্থানীয় জাপা নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য