মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ সরস্বতী হলেন জ্ঞান, বিদ্যা, সাংস্কৃতি ও শুদ্ধতার প্রতীক। সরস্বতী পুজা উপলক্ষে গতকাল সোমবার ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা ও ভাবগাম্ভিয্যের মাধ্যমে বোদা উপজেলার ১০ ইউনিয়নের সনাতন ধর্মালম্বীদের বিভিন্ন মন্ডবে সরস্বতি পুজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রতি বছর মাগ মাসের শুরু পক্ষের শ্রী পঞ্চমী তিথিতে দেবী সরস্বতীর পুজা অনুষ্ঠিত হয়। শাস্ত্র মতে চতুর্ভূজা ব্রক্ষাম মুখ হতে আবির্ভূতা শ্রর্ভ্র্ণা বীণা ধরীণী চন্দ্রের শোভাযুক্তা দেবী হলেন সরস্বতী। সম্প্রদায়গত ধর্মীয় পুজো অনুষ্ঠানের বাইরে সরস্বতী পুজোর বিশেষ সামাজিক গুরুত্ব রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বাড়ী ও মন্ডব সমুহে এ পুজো অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে ছাত্রছাত্রীরা এবং অভিভাবক মহল যার যার অবস্থান থেকে বিদ্যাদেবীকে আরাধনা ও বুঝবার চেষ্টা করে থাকে। তাই এখানে নারী পুরুষের মিলনমেলা, সংহতি ও সম্প্রীতির অন্যন্য দৃষ্টান্ত।

সোমবার সকাল ৮ টা থেকে চলেছে বিদ্যাদেবীর অর্চনা। বিভিন্ন পূজা মন্ডবে সর্বাধিক ভক্ত, ছাত্রছাত্রী অঞ্জলী গ্রহন করেছে। এ বিষয়ে বোদা পাথরাজ মহাবিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক বিকাশ চন্দ্র অধিকারী বলেন, পূজামন্ডপে পূজার্থীরা মায়ের পাদপদ্মে অঞ্জলি দেবেন। দেবীর সামনে ‘হাতেখড়ি’ দিয়ে শিশুদের বিদ্যাচর্চার সূচনা হবে অনেক স্থানে।

সরস্বতী পূজা পালনে স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েদের শিক্ষাজীবনে মঙ্গল বয়ে আনবে এবং শিক্ষার্থীদের মনের প্রফুল্লতা ফিরিয়ে সুস্থ মস্তিষ্ক গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। তাই পূজাটি সনাতন পরিবারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্ব ও তাৎপর্য বহন করে। এছাড়া কিছু মন্ডপে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য