তাদের টহল গাড়িতে রক্তের দাগ লেগে যাবে এই কথা বলে পুলিশ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দুই কিশোরকে হাসপাতালে না নেওয়ায় রক্তক্ষরণে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের সাহারানপুরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের সেলফোনে ধারণ করা ভিডিওর সূত্রে জানিয়েছে এনডিটিভি।

অনলাইনে ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর ওই টহল গাড়িতে থাকা তিন পুলিশকে বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।

১৭ বছর বয়সী অর্পিত খুরানা ও সানি গার্গ মোটরসাইকেলে করে বাড়িতে যাওয়ার পথে একটি খাম্বার সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উড়ে একটি ড্রেনে গিয়ে পড়েন। পথচারিরা তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসেন এবং গাড়ির জন্য জরুরি বিভাগে (ডায়াল ১০০) ফোন করেন।

রাজ্য পুলিশের ডায়াল ১০০ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে রাতের টহলে থাকা তিন পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। কিন্তু দুর্ঘটনায় আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাননি তারা।

তাদের গাড়ির আসনে রক্ত লেগে যাবে এই কারণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেননি তারা। অন্যান্যরা যখন ওই পথ দিয়ে যাওয়া গাড়িগুলো থামানোর চেষ্টা করছিল, পুলিশ তখন নিষ্ক্রিয়ভাবে সেখানে দাঁড়িয়েছিল।

“তারাও কারো না কারো সন্তান। আমি আপনাদের অনুরোধ করছি, ওদের হাসপাতালে নিয়ে যান,” ভিডিওতে আহত দুই কিশোরের এক পরিচিতকে পুলিশকে অনুরোধ করে বলতে শোনা যায় বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

আরেকজনকে কম্পিত কণ্ঠে বার বার বলতে শোনা যায়, “এখানে আর কারো গাড়ি নেই। তাদের নিয়ে যান।”

কিন্তু ‘আমাদের গাড়িতে রক্ত লেগে যাবে’ বলে পুলিশ সদস্যরা তার অনুরোধ খারিজ করে দেন।

আরেক ব্যক্তি বলেন, “আপনাদের গাড়ি ধুয়ে দেওয়া যাবে কিন্তু…,” তাকে শেষ করতে না দিয়েই আরেক পুলিশ সদস্য বলে ওঠেন, “গাড়ি ধুইবো আর আমরা সারারাত বইসা থাকুম।”

পরে স্থানীয় পুলিশ স্টেশন থেকে আরেকটি গাড়ি এসে আহতদের নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যায়, কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পর আহত কিশোরদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য