কলম্বিয়ার অ্যান্তিয়োকিয়া প্রদেশে সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ১০ জন নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে প্রদেশটির সেগোভিয়া শহরের কাছে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে সেনাবাহিনী, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

রাশিয়ার তৈরি এমআই-১৭ হেলিকপ্টারটিতে আট সেনা সদস্য ও দুই বেসামরিক ছিলেন। হেলিকপ্টারটি ককেশিয়া শহর থেকে ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে। হেলিকপ্টারটির আরোহীরা সেনাবাহিনীর জ্বালানি সংরক্ষণাগার পরিদর্শনের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে সেনাবাহিনীর বিমান পরিবহন বিভাগের প্রধান জেনারেল হুয়ান ভিসেন্তে ট্রুজিলো বলেছেন, “ঘটনাটিকে একটি দুর্ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে। এর কারণ বের করতে তদন্ত করা হচ্ছে।”

কোনো গোষ্ঠীর হামলায় হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হতে পারে এমন ধারণা নাকচ করেছেন তিনি।

নিহতদের লাশ উদ্ধারে সেনারা ঘটনাস্থলে তৎপরতা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

হেলিকপ্টারটি যে এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানে বিদ্রোহী গোষ্ঠী দ্য ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির (ইএলএন) উপস্থিতি আছে। সম্প্রতি সরকারের সঙ্গে অস্ত্রবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর গোষ্ঠীটি ফের হামলা চালানো শুরু করেছে।

গত বছর কলম্বিয়ার বহুল আলোচিত বিদ্রোহী গোষ্ঠী রেভ্যুলুশনারি আর্মড ফোর্সেস অব কলম্বিয়া (ফার্ক) সঙ্গে সরকারের একটি শান্তিচুক্তি হয়। চুক্তির শর্তানুযায়ী ফার্ককে ভেঙে দেওয়া হয়। এর মাধ্যমে পাঁচ দশক ধরে চলা একটি রক্তাক্ত অধ্যায়ের সমাপ্তি হয়।

কিন্তু ইএলএন, ফার্কের ভিন্নমতাবলম্বীরা, ডানপন্থি সাবেক বেসামরিক বাহিনীগুলো ও অপরাধী গোষ্ঠীগুলো তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য