দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর জেলাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে চুরি হওয়া মোটর সাইকেল উদ্ধার করে প্রকৃত মালিকদের নিকট হস্তান্তর করেন দিনাজপুরের পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম।

একের পর সাফল্যে পুলিশ সুপারের ঝুড়িতে আরো একটি নতুন সাফল্য যোগ হলো।

চুরি হওয়া মোটর সাইকেল ফেরৎ পেয়ে খুশীতে কেঁদে কেঁদে পুলিশ সুপারের জন্য পরম করুনাময়ের নিকট প্রাণ খুলে দোয়া করেন মোটরসাইকেলের মালিকরা।

পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টরা যেন এ ধরনের সাফল্যের কাজ আরও করতে পারেন সে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

১৬ জানুয়ারী মঙ্গলবার দিনাজপুর পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম বিপিএম এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দিনাজপুরসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে চুরি হওয়া ৫টি মোটরসাইকেল প্রকৃত মালিকদের নিকট হস্তান্তরের পর মোটরসাইকেল মালিকরা এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মঙ্গলবার চোরাই মোটরসাইকেল ফেরৎ পাওয়া মালিকগণ হলেন- সদর উপজেলার আবুল হায়াত মোঃ শাহজালাল, বীরগঞ্জ উপজেলার গোলাম সারোয়ার, নবাবগঞ্জ উপজেলার মাহামুদুজ্জামান, হাকিমপুর উপজেলার ইসলাম শেখ ও ঠাকুরগাঁও জেলার হারুন-উর-রশিদ।

মোটরসাইকেল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোঃ কাজেম উদ্দীন, সহকারি পুলিশ সুপার (হেডকোয়াটার) মোঃ জামাল আক্তার, মোটরসাইকেল উদ্ধার টিমের ইনচার্জ এসএম মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক মোঃ জামাল হোসেনসহ উক্ত টিমের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

জেলা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, দিনাজপুর পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলমের পরিকল্পনা ও আন্তরিক প্রচেষ্টায় দিনাজপুরসহ বিভিন্ন জেলা হতে চুরি হওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারে বিশেষ টিম কাজ করছে।

ওই টিম দিনাজপুরসহ পার্শ্ববর্তী জেলা সমুহে অভিযান পরিচালনা করে এ পর্যন্ত মোট ৬ মাসে ১৫০টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে। সেই সাথে ৭০ জন আন্তঃজেলা কুখ্যাত চোরকেও গ্রেফতার করে আদালতে সোপার্দ করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে আরো ৩২টি মোটরসাইকেল প্রকৃত মালিকের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। পুলিশ সুপার হামিদুল আলম বিপিএম জিরো টলারেন্স প্রদর্শন করায় এ সফলতা অর্জন সম্ভব হয়েছে বলে জেলা পুলিশ সুত্র জানিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য