এস.আই বিজয়,তারাগঞ্জ(রংপুর) থেকেঃ দৈনিক প্রথম আলোর রংপুরের তারাগঞ্জ প্রতিনিধি রহিদুল মিয়া ২০দিন ধরে অসুস্থ্য। তাঁর কোমরের একটি ডিস্ক বেকে গিয়ে একটি রগ চেপে ধরেছে। এ কারণে ওই রগ দিয়ে ঠিকমতো রক্ত চলাচল করতে পারছে না।

ফলে পায়ে তীব্র ব্যথায় তিনি বিছানায় শুয়ে কাতরাচ্ছেন। রংপুরের সাত জন চিকিৎসকের কাছে তিনি চিকিৎসা নিলেও শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। ২০১৩ সালে নভেম্বর মাসে তারাগঞ্জের বানিয়াপাড়া গ্রামে আহম্মদীয়া সম্প্রদায়ের মসজিদ পুড়িয়ে দেওয়ার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে রহিদুল মিয়া গুরুত্বর আহত হয়েছিল।

ওই সময় তার চোয়ালী ভেঙে যায়। শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পান। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুইমাস চিকিৎসা নেওয়ার পর তিনি সুস্থ্য হন। চিকিৎসকেরা বলেছে, ওই সময় কোমরের ওই স্থানে প্রচন্ড আঘত পাওয়ার কারণে রহিদুলের এ সমস্যা হয়েছে। চিকিৎসকেরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে বিমান যোগে তাকে ঢাকায় নিয়ে যায়।

রহিদুল মিয়া সবার কাছে তাঁর সুস্থ্যতার জন্য দোয়া চেয়েছেন। অসুস্থ্য রহিদুল মিয়াকে দেখতে গতকাল সোমবার তাঁর বাড়িতে যান তারাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান লিটন, ইউএনও জিলুফা সুলতানা, দৈনিক খোলা কাগজের তারাগঞ্জ প্রতিনিধি বিপ্লব হোসেন অপু,সাংবাদিক সুমন আহম্মেদ,এস আই বিজয়, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বিশিষ্ট সমাজসেবক বায়েজীদ বোস্তামী সয়ার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আজম ও ইউপি সদস্যরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য