নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় বিআরডিবি’র পজীব-২ প্রকল্পের চেক বই চুরি করে সরকারী ৩ লক্ষ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। চান্দখানা মসজিদ পাড়া মহিলা বিত্তহীন সমবায় সমিতির নামে সোনালী ব্যাংক হতে চেকের মাধ্যমে ওই ৩ লক্ষ টাকা উত্তোলন করা হয়। এতে ওই দপ্তরের কর্মকর্তারা একে অপরকে দোষারোপ করছে।

উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা এরমান আলী জানান, ওই চেক বইয়ের দু’টি পাতা অফিসের কাজে ব্যবহার করার পর আট পাতার একটি বইতারই অফিসের হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা ফজলে খোদার কাছে গচ্ছিত ছিল। কিন্তু সোমবার তিনি বলেন ওই চেক বইটি খুজে পাওয়া যাচ্ছে না।

খোঁজাখুঁজির পর না পাওয়ায় ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে জানা যায় সোমবারেই ব্যাংক হতে চান্দখানা মসজিদ পাড়া মহিলা বিত্তহীন সমবায় সমিতির নামে সোনালী ব্যাংক হতে চেকের মাধ্যমে তিন লক্ষ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। সেখানে নাকি আমার স্বাক্ষর রয়েছে। কিন্তু আমি কোন স্বাক্ষর করি নাই। কেউ আমার স্বাক্ষর জাল করেছে।

তিনি বলেন, চেক ছিল হিসাব রক্ষন কর্মকর্তার কাছে। তিনি নিশ্চই কিছু জানেন। হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা ফজলে খোদা জানান, আমি অফিসের ড্রয়ার খুলে দেখি চেক বইটি নাই। পরে জানতে পারি প্রকল্প কর্মকর্তা এরমান আলীর স্বাক্ষরে তিন লক্ষ টাকা ব্যাংক হতে উত্তোলন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ডোমার সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা মাহমুদুজ্জামান সুমন তিন লক্ষ টাকা উত্তোলনের সত্যতা নিশ্চিত করেন। এ ব্যাপারে থানার একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। চেক চুরি ও ব্যাংক হতে টাকা উত্তোলনে বিআরডিবি’র ডোমার কার্যালয়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীগন একটি তদন্ত কমিটি করে দোষীদের বিচারেরও দাবী করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য