মেক্সিকোর আকাপুলকো শহরের বাইরের একটি বিখ্যাত রিসোর্টে স্বঘোষিত ‘কমিউনিটি পুলিশ বাহিনী’র সঙ্গে স্থানীয়দের বন্দুকযুদ্ধে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওই ‘পুলিশ বাহিনী’র লোকেরা অসদাচরণের অভিযোগে এ তরুণকে আটক করাকে কেন্দ্র করে ঘটনা বন্দুকযুদ্ধে রূপ নেয়।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, নিহতদের মধ্যে ৮ জনই স্থানীয় বাসিন্দা। সেনাবাহিনী ও রাষ্ট্রীয় পুলিশ বাহিনীর লোকেরা সেখানে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তারা স্থানীয়দের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধরত ভুয়া পুলিশ বাহিনীর ৩ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করে। এ সময় ওই অবৈধ বাহিনীর ৩০ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আকাপুলকো শহরের ঠিক বাইরের যে বিচ রিসোর্টে এই ঘটনাটি ঘটে, সেটির সঙ্গে বহু বিশ্বখ্যাত হলিউড মুভির স্মৃতি জড়িত। এ কারণে জায়গাটিকে ‘হলিউড প্লেগ্রাউন্ড’ বলে ডাকা হয়।

এই রাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল হাভিয়ের ওলিয়া পালায়েস বলেন, হত্যা, অবৈধ অস্ত্র রাখা ও মাদক সংশ্লিষ্টতার অপরাধে জড়িত সন্দেহে অবৈধ এই বাহিনীর সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে কুখ্যাত সহিংস শহরগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে এই আকাপুলকো। শহরটিকে সব ধরনের সন্ত্রাস-সহিংসতার স্বর্গরাজ্য বলে গণ্য করা হয় একে। ২০১৭ সালের প্রথম ৬ মাসেই সেখানে ১২০০০ হত্যাকা- সংঘটিত হয়। এ ছাড়া মাদকের জন্যও কুখ্যাত এই শহরকে আফিম উৎপাদনের কেন্দ্রস্থল বলে গণ্য করা হয়। এজন্য এর অপর নাম ‘আফিম নগর’।

প্রসঙ্গত, ১৯৬০-এর দশকে বিখ্যাত আমেরিকান গায়ক-অভিনেতা এলভিস প্রিসলির একটি চলচ্চিত্রের পটভূমি হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছিল এই আকাপুলকো শহরকে। এ ছাড়া হলিউড তারকাসহ পশ্চিমা সেলিব্রেটিদের অনেকেই বিয়ে, মধুচন্দ্রিমযাপনের জন্য বেছে নেন এখানকার নয়নাভিরাম সি-রিসোর্টকে। এসব সেলিব্রেটির মধ্যে প্রয়াত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডি, জ্যাকুলিন কেনেডিও রয়েছেন। এ ছাড়া অভিনেতা জন ওয়েইন এখানে শখের বশে একটি হোটেল খুলেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য