আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় ট্রাক আটকিয়ে ৫ লক্ষ ৬ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সোমবার (১ জানুয়ারি) সকালে পাটগ্রাম থানায় পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১৫-২০ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে ট্রাকের মালিক বুলু মিয়া।

তবে অভিযুক্ত মঞ্জুরুল অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, পাওনা টাকার জন্য ট্রাক আটক করা হয়েছে মাত্র।

এর আগে রবিবার (৩১ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে পাটগ্রাম উপজেলার নবীনগর এলাকায় এই ছিনতাইয়ের ঘটনাটি ঘটে বলে এজাহারে উল্লেখ রয়েছে। মামলার এজাহারে উল্লেখ আছে যে, রবিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পাটগ্রাম উপজেলার নবীনগর এলাকায় মোজাম্মেল, মঞ্জুরুল, জয়নাল, আ. মান্নান, লাভলুসহ আরও অনেকে ট্রাকের গতিরোধ করে ট্রাকে থাকা ৫ লক্ষ ৬ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ট্রাকের ড্রাইভার শাহ আলম বলেন, কয়েকজন লাঠি সোঠা নিয়ে ট্রাকের সামনে দাঁড়ায়। এ সময় তারা আমাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে বাউরা ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে নিয়ে যায়।

চেয়ারম্যান আমাকে গাড়ির চাবি জমা দিয়ে চলে যেতে বললে আমি সেখান থেকে চলে যাই। তবে গাড়িতে ৫ লক্ষ্য ৬ হাজার টাকা ছিলো সেই টাকা কে নিয়ে গেছে তা আমার জানা নেই। অভিযুক্ত মঞ্জুরুল বলেন, সব মিথ্যা। ওই ট্রাকের মালিকের কাছে আমি টাকা পাই। তাই ট্রাকটি আটক করে।

বাউড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দুলালের কাছে হস্তান্তর করেছি। ট্রাকের মালিক বুলু জানান, আমার ট্রাক আটকিয়ে ৫ লক্ষ ৬ হাজার টাকা ছিনতাই করা হয়েছে। তাই আমি থানায় অভিযোগ করেছি। বাউড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দুলাল জানান, ছিনতাই নয় মঞ্জুরুল ট্রাকের মালিকের কাছে টাকা পায়। তাই সে ট্রাকটি আটক করে পরিষদে নিয়ে এসেছে।

পাটগ্রাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনিশ্বংর কর জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্তের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য