সেন্ট পিটার্সবুর্গের সুপারমার্কেটে বোমা হামলায় জড়িত সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে রাশিয়ার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বুধবারের ওই হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছিল।

রুশ গণমাধ্যমগুলো বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, শনিবার রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি) সুপারমার্কেটে হামলার ‘সংগঠক ও বাস্তবায়নকারী’ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের কথা ঘোষণা করেছে।

তবে গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম-পরিচয় জানায়নি তারা।

সুপারমার্কেট চেইন পিরিক্রেয়স্তকে ঘরে তৈরি ওই বোমার বিস্ফোরণে (আইইডি) ১৩ জন আহত হয়েছিল।

দায় স্বীকার করলেও হামলার পেছনে যে তারাই ছিল, এমন কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি আইএস।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এই হামলাটিকে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন।

শুক্রবার তিনি নতুন একটি আইনে স্বাক্ষর করেন; এই আইনে সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর সদস্য সংগ্রহে জড়িতদের দণ্ড আরও কঠোর করা হয়েছে।

রাশিয়া এবং মধ্য এশিয়ার সাবেক সোভিয়েত রাষ্ট্রগুলো থেকে হাজার হাজার সদস্য রিক্রুট করেছিল আইএস; ওই জঙ্গিরা দেশে ফিরে এলে বিপদের মাত্রা বাড়বে বলে এর আগে সতর্ক করেছিলেন পুতিন।

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে দেশটির সরকারি বাহিনীর পক্ষ হয়ে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের কারণে দেশটি আইএস ও অন্যান্য জঙ্গিগোষ্ঠীর অন্যতম প্রধান লক্ষ্যস্থলে পরিণত হয়েছে বলে পর্যবেক্ষকদের ধারণা।

রুশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বুধবারের হামলায় ব্যবহৃত ২০০ গ্রাম টিএনটির সমান শক্তিসম্পন্ন বোমাটি ধাতুর টুকরা দিয়ে ভরা ছিল।

সুপারমার্কেটের যে অংশে ক্রেতারা তাদের ব্যাগ রেখে ভেতরে প্রবেশ করেন সেই লকার এলাকায় বিস্ফোরণটি ঘটে বলে রুশ গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

বিস্ফোরণের পরপরই মার্কেট থেকে সবাইকে সরিয়ে নেওয়া হয়। সেখানে আগুন লাগার কোনো খবর পাওয়া যায়নি। যদিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিগুলোতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির চিত্র দেখা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য