ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী মুক্ত দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভায় উপস্থিত বক্তাগণ বলেছেন, বাক স্বাধীনতা ও অবাধ গণতন্ত্রই হচ্ছে মুক্তি যুদ্ধের মুল চেতনা। গণতন্ত্র ও বাক স্বাধীনতাকে রুদ্ধ করে মুক্তি যুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করা সম্ভাব নয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায়, ফুলবাড়ী মুক্ত দিবস উপলক্ষে স্থানীয় সড়ক ও জনপদ ডাকবাংলা চত্তরে ফুলবাড়ী মুক্তি যোদ্ধাদের উদ্যোগে আয়োজিত, আলোচনা সভায় বক্তাগণ উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় ফুলবাড়ী মুক্তি যোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ৭ নং সেক্টর মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি , সাবেক মন্ত্রী আলহাজ মনসুর আলী সরকার, এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দিনাজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মকশেদ আলী মঙ্গলিয়া, দৈনিক উত্তর বাংলা সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান, দিনাজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডিপুটি কমান্ডার সাইদুর রহমান,বীর মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল ইসলাম প্রমুখ।

এর পুর্বে পৌর শহরের ছোট যমুনা ব্রীজের পশ্চিম দিক থেকে একটি বিজয় র‌্যালী বের করা হয়, র‌্যালীটি পৌর শহর প্রদক্ষিন করে সড়ক ও জনপদ ডাকবাংলা চত্তরে এসে শেষ হয। র‌্যালী শেষে জাতিয় পতাকা উত্তোলন করেন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা বছির উদ্দিনের বিধুবা স্ত্রী রশিদা বেওয়া ও অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাবেক মন্ত্রী মনসুর আলী সরকার।

৭নং সেক্টর মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আলহাজ মনসুর আলী সরকার বলেন, পাকিস্তান সরকার আমাদের ভোটের অধিকার, কথা বলার অধিকার বন্ধ করে দিয়েছিল, এজন্য আমরা জিবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছি, আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকার, মত প্রকাশের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। কিন্তু আজ স্বাধীন দেশে আমাদের মত প্রকাশ করতে পারছিনা, ভিন্ন মতের ব্যাক্তিদের উপর নির্যাতন করা হচ্ছে।

দিনাজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মকশেদ আলী মঙ্গলীয়া বলেন মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক অধিকার বন্ধ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করা সম্ভাব নয়।

উত্তর বাংলা সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান বলেছেন স্বাধীনতা অর্জনের পিছনের জনমত সৃষ্টি করতে সংবাদপত্র নিরলস ভাবে কাজ করে গেছে, তাই সংবাদপত্রের অবাধ স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে।

উল্লেখ্য ৪ ডিসেম্বর ফুলবাড়ী হানাদার মুক্ত দিবস ও ফুলবাড়ী মুক্তদিবস, ফুলবাড়ি মুক্ত দিবস উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার এই আলোচনাসভা ও বিজয় র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য