বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় শনাক্ত করা ভূয়া পরীক্ষার্থী এবং তাদের সঙ্গে জড়িতদের তথ্য অনুসন্ধানের জন্য একটি তথ্যানুসন্ধান কমিটি গঠন করা হয়েছে।

উপাচার্য প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ’র নির্দেশে রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইব্রাহীম কবীর তিন সদস্যের এই কমিটি গঠন করে অফিস আদেশ জারি করেন।

এতে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আজিজুর রহমানকে আহবায়ক এবং সাইবার সেন্টারের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও সহকারী প্রক্টর মুহাঃ শামসুজ্জামানকে কমিটির সদস্য সচিব করা হয়েছে। কমিটির অপর সদস্য হলেন সহকারী প্রক্টর এবং ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আতিউর রহমান।

২০২৭-২০১৮ শিক্ষাবষে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির ঘটনাকে কেন্দ্র করে উদ্ভুত পরিস্থিতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো অনুসন্ধানের মাধ্যমে দ্রুততম সময়ের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে কমিটিকে।

উল্লেখ্য, ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার সাক্ষাৎকার দিতে আসলে বিভিন্ন ইউনিটের সাত জন শিক্ষার্থীকে ভূয়া হিসেবে সনাক্ত করে পুলিশে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. আবু কালাম মোঃ ফরিদ উল ইসলাম বাদী হয়ে রংপুরের কোতয়ালী থানায় তাঁদের নামে মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য