কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ ইউনিয়নের চর নাজিরদহ-পল্লীমারী যাওয়ার রাস্তায় গত বন্যায় ব্রীজ ও রাস্তাটির একাংশ ভেঙ্গে য়ায়। দীর্ঘ দিনেও তা সংস্কার না করায় এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগে পড়লেও এ যেন দেখার কেউ নেই।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বেশ কিছুদিন আগেই বন্যার পানি নেমে গেলেও জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তা ও বীজটি সংস্কার না করায় সাধারন মানুষকে অন্যের জমির উপর দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।

এর ফলে জমির মালিকের অনেক গাল মন্দ শুনতে হচ্ছে পথচারীদের। বর্তমানে শুস্ক মৌসুমে চলাচল করতে পারলেও বর্ষা মৌসুমে ওই রাস্তা দিয়ে জনসাধারনের চলাচল একেবারেই বন্ধ হয়ে যাবে।

পল্লীমারী, সিট নাজিরদহ, চর চতুরা, গফ্ফারটারী, মঙ্গনুদিটারী গ্রামের স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা গামী ছাত্র-ছাত্রীসহ হাজার হাজার মানুষ ওই রাস্তা ও ব্রীজ দিয়ে একতা হাট, খানসামাহাট, বকুলতলা বাজার, খানসামাহাট, ইউনিয়ন পরিষদ,হারাগাছ পৌরসভা সহ উপজেলা সদরে যেতে হয়।

এ অঞ্চলের কৃষকের উৎপাদিত ফসল বাজারে নিয়ে গিয়ে বিক্রয় করতে চরম বিরম্বনায় পড়তে হচ্ছে। জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তা ও ব্রীজটি বর্ষা মৌসুম শুরুর আগেই নির্মান করার জন্য এলাকাবাসী দাবী জানিয়েছে।

হারাগাছ ইউপি চেয়ারম্যান রকিবুল হাসান পলাশ জানান আগামি ১ মাসের মধ্যেই রাস্তাটিতে মাটি কেটে মেরামত এবং বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে ব্রীজটি নতুন করে নির্মান কাজ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য