বীরগঞ্জের ঝাড়বাড়ীতে বিরল প্রজাতির ২টি অসুস্থ্য শকুন মাটিতে পড়ে যায়। এর একটি পাখিকে তীর ধনুকে আহত পরে জবাই করেছে স্থানীয় আদিবাসীরা।

পরে স্থানীয়রা দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ী কলেজ মোড় এলাকায় বিরল প্রজাতির আরেকটি শকুন উদ্ধার করে।

ওই এলাকার জাকির হোসেনসহ স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে বীরগঞ্জ উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের ঠকঠকিয়া পাড়ায় বিরল প্রজাতির শকুনকে তীর ধনুক দিয়ে আহত করার পর জবাই করে। পরে আদিবাসী লোকজনের কাছে শকুনটি বিক্রয় করার সময় সাংবাদিক উপস্থিত হলে আদিবাসী লোকজন শকুনটিকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

অপরদিকে, বুধবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ঝড়বাড়ী কলেজ মোড় এলাকার স্থানীয় পপুরলো দেবনাথের বাগানে পড়ে থাকতে দেখা যায় আরেকটি শকুন।ওই এলাকার সুপেন দেবনাথসহ এলাকাবাসী পাখিটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় শহিদুল ইসলামের বাসায় রাখা হয়। পরে সকালবেলা পাখিটিকে আবার ছেড়ে দেন কিন্তু পাখিটি খুব দুর্বলের কারণে উড়তে পারেনি। পরে উদ্ধার করে স্থানীয় আজিজুলের বাসায় রাখে পরে গ্রামপুলিশ এসে পাখিটি নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারের শতগ্রাম ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের দফাদার মোঃ বাবুল হোসেন জানান, একটি জীবিত শকুন পাখি ও জবাই করা পাখি উদ্ধার করা হয়েছে। অসুস্থ্য জীবিত পাখিটিকে চিকিৎসা দিতে বীরগঞ্জ উপজেলা পশু হাসপাতালে ভর্তি করে।

বীরগঞ্জ উপজেলা প্রানীসম্পদ বিভাগের ডাঃ মোঃ ইউনুস আলী জানান, পাখিটি কোন কারণে আঞাত প্রাপ্ত হয়ে অসুস্থ্য হয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এরপরে পাখিটিকে বনবিভাগের কাছে হস্তানান্তর করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য