দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে অনুষ্ঠেয় ‘বাংলাদেশ যুব গেমস-২০১৮’ পরিদর্শন করেছেন ‘বাংলাদেশ যুব গেমস এর স্টিয়ারিং কমিটির সেক্রেটারী ও অলিম্পিক এসোসিয়েশনের উপ-মহাসচিব এবং বাংলাদেশ ভবিলব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান মিকু।

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের তত্ত্বাবধানে ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ২১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর স্পোর্টস ভিলেজের কাবাডি মাঠে অনুষ্ঠিত অনুর্ধ্ব-১৭ (তরুন) আন্ত: উপজেলা কাবাডি প্রতিযোগিতা চলাকালীন কাবাডি মাঠে উপস্থিত হন তিনি। এসময় জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বাংলাদেশ ভলিবল ফেডারেশনের নির্বাহী সদস্য ও জেলা ভলিবল দলের আহবায়ক এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সমিরন ঘোষ।

পরে উপস্থিত সকল খেলোয়াড় ও নেতৃবৃন্দের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে আশিকুর রহমান মিকুর হাতে ক্রেস্ট প্রদান করেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুব্রত মজুমদার ডলার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের সদস্য আহমেদুর রহমান বাবলু। তাকে জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে ক্রেস্ট প্রদান করেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান।

দিনাজপুরে অনুষ্ঠেয় যুব গেমস পরিদর্শনকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যও রাখেন আশিকুর রহমান মিকু। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, দেশের যুব সমাজকে মাদক মুক্ত রাখতে ‘বাংলাদেশ যুব গেমস-২০১৮’ এর আয়োজন করা হয়েছে। আর বাংলাদেশের প্রত্যেকটি উপজেলাকে এই যুব গেমস এর আওতায় আনা হয়েছে যা ইতিপুর্বে কখনো হয়নি। যার ফলে দেশে যুব জাগরণের সৃস্টি হয়েছে। আর এই যুব জাগরণ ধরে রাখতে তৃণমুল পর্যায়ে যে খেলা শুরু হয়েছে তা অবশ্যই চলমান থাকবে।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন চৌধুরী পাপ্পু, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক আসলাম হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক কামরুজ্জামান, সদস্য প্রশান্ত কুমার সরকার অরুন, আনিস হোসেন দুলাল, আনোয়ারুল ইসলাম সুমিসহ ক্রীড়া সংস্থার নেতৃবৃন্দ-খেলোয়াড়বৃন্দ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে অনুর্ধ্ব-১৭ (তরুন) আন্ত: উপজেলা কাবাডি প্রতিযোগিতার খানসামা বনাম ফুলবাড়ী উপজেলার খেলোয়াড়দের সাথে পরিচিত হন এবং তাদের খেলা উপভোগ করেন আশিকুর রহমান মিকু।

এদিকে সকাল থেকে অনুর্ধ্ব-১৭ (তরুন) আন্ত: উপজেলা কাবাডি প্রতিযোগিতার ৩টি খেলা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমে নবাবগঞ্জ উপজেলাকে ৫৪-২৩ পয়েন্টে পরাজিত করে চিররবন্দর উপজেলা বিজয়ী হয়। দ্বিতীয় খেলায় ফুলবাড়ী উপজেলাকে ৪৮-৪১ পয়েন্টে পরাজিত করেন খানসামা উপজেলা বিজয়ী হয়।

তৃতীয় খেলায় বীরগঞ্জ উপজেলাকে ৬৩-৩৫ পয়েন্টে পরাজিত করে সদর উপজেলা বিজয়ী হয়। রেফারী হিসেবে খেলা পরিচালনা করেন কামরুজ্জামান, মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মো. মহসীন আলী, হামিদুর রহমান, মোকসেদ আলী ও আব্দুল লতিফ।

বিকেলে পার্বতীপুর ও চিরিরবন্দর উপজেলার অংশগ্রহনে কাবাডি কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান আয়োজকবৃন্দ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য